পুলিশের ভাল কাজ গুলি মানুষের চোখে পড়ে না

আবুল কালাম আজাদ:-বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড: বেনজির আহম্মেদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও নির্দেশে, বাংলাদেশ পুলিশের মধ্যে আমূল পরিবর্তন এসেছে।
তারা সাধারণ মানুষের সেবাসহ বহু মানবিক কাজ করছেন।
এর উদাহরণ ,মহামারী করোনার সূচনা লগ্ন থেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে, সাধারণ মানুষকে করোনা পরিস্থিতিথেকে বাঁচার জন্য উদ্বুদ্ধকরণ, মাস্ক বিতরণ, খাবার বিতরণসহ নানাবিধ কাজ করে যাচ্ছেন রাত দিন।
এ করোনায় সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করতে গিয়ে মারা গেছেন প্রায় দুই শতাধিক পুলিশ সদস্য।
মানুষ যখন করোণা আতঙ্কে ঘরের ভিতরে তখন পুলিশ সদস্যরা এ রাস্তায় নেমে নেমে মানুষের সেবা করছে।
সাধারণ মানুষ যখন তার পরিবারের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করছে তখন এই পুলিশ সদস্যরায় সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার জন্য পরিবার পরিবার পরিজন দূরে রেখে তারা কর্তব্য পালন করছে।
কিন্তু দেখা গেছে কিছু রাজনৈতিক নেতা ,সাংবাদিক পুলিশকে বিতর্ক করতে সর্বদা ব্যস্ত । তারা পুলিশ প্রশাসনের ভালো কাজ গুলি দেখেও না দেখার ভান করে থাকে‌। আর সামান্য কিছুতেই তাদের অনিচ্ছাকৃত ভুল গুলি  তুলে ধরছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
১৬ মে ,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট চোখে পড়লো। পোস্টটিতে উল্লেখ করা হয়েছে বোয়ালিয়া মডেল থানার একজন চৌকস অফিসার এসআই মোস্তফাকে নিয়ে। তিনি লিখেছেন সরকার নির্দেশিত আইন আমন্য করে মোটরসাইকেল রেলী করে রাজশাহীতে রোডে উল্লাস করে ঘুরছেন।
প্রশ্ন থেকেই যায়, মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেন রাজনৈতিক নেতারা, পুলিশ কখনোই মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেন না।
সেখানে আরো উল্লেখ করা ছিল হেলমেট ও মাস্ক ছাড়াই তিনি এই মোটরসাইকেল  শোভাযাত্রার নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন।
বিষয়টি নিয়ে কথা হয় এস আই মোস্তফার সাথে তিনি এ বিষয়ে বলেন, তিনি ঈদের দিনে আরএমপি দায়িত্ব পালনকালে কিছু  যুবক হাই স্পিডের মোটর সাইকেল নিয়ে মাঝ রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন।
স্বাভাবিকভাবে উশৃংখল ভাবে মোটরসাইকেল চালক যুবকদের এভাবে রাস্তার মোটরসাইকেল না চালানোর জন্য সতর্ক করার জন্য তিনি রাস্তায় থামেন।
তাদের সাথে কথা বলার জন্য তিনি মাছটি মুখ থেকে খুলেছিলেন এবং হেলমেটটি মাথা থেকে নামিয়ে ছিলেন এটাই তার অপরাধ।
আমি পুলিশের দায়িত্ব হিসাবে জনস্বার্থেই এ কাজটি করেছি। যদি এটি অপরাধ হয়ে থাকে, তবে আমি অপরাধ করেছি।
তিনি আরো বলেন সাধারণ মানুষ ,এমনকি মিডিয়া পুলিশের ভাল কাজ গুলি দেখেও না দেখার ভান করেন। তারা শুধু তাদের ত্রুটিগুলো দেখেন।
তার কারণে পুলিশ ভালো কাজের উৎসাহ হারাচ্ছেন।
তিনি মিডিয়ার কাছে অনুরোধ করে বলেন, তাদের খারাপ দিক যেমন লিখবেন,তেমন তাদের ভালো  দিক গুলি লিখে তাদের ভালো কাজে উৎসাহ দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *