ঈদ মানেনা করোনা ভাইরাস-জমে উঠেছে শপিংমলগুলোতে

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় প্রতিটি শপিং কমপ্লেক্্র গুলোতে সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পযর্ন্ত গামেন্টস,কসমেটিক,সেন্ডেল,ঘড়ি,দর্জি ও কাপড়ের দোকান গুলোতে উপচেপড়া ভীড় লক্ষ্য করা যায়।
সরকারি নির্দেশনা ছিলো করোনা প্রতিরোধ ও জনসচেতনতা জন্য ওষধ, কাচাঁবাজার, শপিং কমপ্লেক্্র গুলোতে মাস্ক পড়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহবান জানানো হলেও সোমবার (১১-মে) সকাল ৮টা থেকে দোকানিরা বাংলাদেশী, ভারত, চাইনাসহ বিভিন্ন দেশের পসরা সাজিয়েছে ঈদে বিক্রি করার জন্য। ঈদ মানেই খুশি,ঈদ মানেই আনন্দ-এ কথাটি নতুন নয়। তবে মরণ ব্যাধি করোনা ভাইরাস এর কারণে আনন্দ উপভোগ করা সকলের কাছেই যেন সোনার হরিণ। তাই এই সুযোগেই কেনা কাটা সেরে ফেলতে চান ক্রেতারা।
করোনা ভাইরাস সারা বিশ্ববাসিকে ভাবিয়ে তুলেছে। এটি এমন একটি রোগ যা থেকে বাঁচা দুঃসাধ্য। এটি বায়ুবাহিত রোগ। যা বাতাশের মাধ্যমে ছড়াই। গত ডিসেম্বর মাসে চিনে এ রোগ প্রথম দেখা দেয়। পরবর্তীতে সবদেশে ছড়িয়ে পড়ে।
এই রোগে সারা বিশ্বে প্রয় ১৬ কেটি মানুষ এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে আমাদের দেশে এ রোগে আক্রান্ত ৭ লক্ষ ৭৫ হাজার ২৭ জনের সন্ধান মিলেছে এবং আক্রান্ত হয়ে মারা যায় ১১ হাজার ৯৭২ জন।
উপজেলার আড়ানী পৌর বাজারের রাজ্জাক প্লাজার বিশ্বরূপা বস্ত্রালয়ের প্রোপাইটর আমিনুল ইসলাম ও রিজভী জানান, সামাজিক দুরত্ব ,হান্ডস্যানিটাইজার কিছুই মানছেননা ক্রেতারা। ঈদকে সামনে রেখে সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পযন্ত বিরতীহিন ক্রেতাদের ভীড় থাকে। এবার ঈদে জামদানি শাড়ি,ভারতীয় থ্রি-পিচ,লেহেঙ্গা,স্কাট, পাগলু ,পাকিন্তানি লোনসহ বিভিন্ন নামের শাড়ি ও তৈরী পোষাক বিক্রি হচ্ছে। ঈদে দেশী পোষাকের চেয়ে ভারতীয়সহ বিদেশী পোষাকের চাহিদা অনেক বেশী।
আজের জহুরা মার্কেটের খালেদ এন্ড ব্রাদার্স সু ষ্টোরের প্রোপাইটর খাইরুজ্জামান বলেন, সামাজিক দুরত্ব ,হান্ডস্যানিটাইজার কিছুই মানছেননা ক্রেতারা। সকাল থেকে রাত ১০টা পযন্ত ক্রেতাদের ভীড় থাকে। এই ঈদে লিবার্টি,বাটা,পায়েপায়ে এমডি, মান্নান, লোটো, এ্যাপেক্্র, চাইনাসহ বিভিন্ন ডিজাইনের জুতা,সেন্ডেল বিক্রি হচ্ছে।
রাজ্জাক প্লাজার মনোয়ারা কসমেট্রিক্র এর প্রোপাইটর বিপুল সরকার জানান, সামাজিক দুরত্ব ,হান্ডস্যানিটাইজার মানছেননা ক্রেতারা। সকাল থেকে রাত ১০টা পযন্ত ক্রেতাদের ভীড় থাকে, ঈদে গামেন্টস,সিট কাপড়,সেন্ডেলের দোকান ঘুরে ক্রেতারা আসে এখানে সাবান,সাম্পু,ফ্রেশওয়াশ, চুরি, মালা, মানিব্যাগ,লিবিস্টিক, ভেনেটি ব্যাগ,বডিস্প্রে,আটরসহ বিভিন্ন কসমেটিক সামগ্রী বিক্রি হচ্ছে।
শাহমুকদুম সুপার মার্কেটের সরকার ইলেকট্্রনিক্্র এর প্রোপাইটর উৎসব সরকার জানান, সামাজিক দুরত্ব ,হান্ডস্যানিটাইজার মানছেননা ক্রেতারা। ইলেকট্রনিক্্র এর টিভি, এলইডি, সাউন্টবক্্র, ফ্যান, হাত ঘড়ি, দেয়াল ঘড়ি, রাইচ কুকারসহ অনান্য সামগ্রীও বিক্রি হচ্ছে।
বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, ঈদকে সামনে রেখে পুলিশের টহল ও নজরদারি বাড়ানো হয়েছে,কোথাও কোন অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে সেখানে হাজির হবে পুলিশ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *