পাওনা ২ হাজার টাকা ফেরত না দেওয়ায় পিতাকে পিটিয়ে হত্যা !

পাবনা প্রতিনিধি: পাওনা টাকা না দেওয়ায় পিতা আহেজ প্রামানিক (৭০) কে পিটিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করলো ছেলে আব্দুর রহিম (৪৩)। গত শনিবার রাতে ঢাকা থেকে পুলিশ ঘাতক ছেলে আব্দুর রহিম কে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর সে হত্যার কথা স্বীকার করে পুলিশ ও আদালতের কাছে স্বীকারক্তি মূলক জবানবন্ধি দেন।
গত ২২ এপ্রিল রাতে পাবনার আতাইকুলায় ছেলে আব্দুর রহিমের লাঠির আঘাতে নিহত হন পিতা আহেজ প্রামানিক। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আঃ আউয়াল বাদী হয়ে আতাইকুলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, নিহত আহেজ প্রাং অভাবের কারণে তার ছেলে আব্দুর রহিমের কাছ থেকে ২ হাজার টাকা ধার নেন। ২২ এপ্রিল রাত ৯ টার দিকে ছেলে রহিম পিতা আহেজ প্রামানিকের কাছে পাওনা টাকা ফেরৎ চান। বাবা টাকা ফেরৎ দিতে না পারায় দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ছেলে রহিম বাঁশের লাঠি দিয়ে পিতার মাথায় আঘাত করে। এতে সে গুরুত্বর আহত হন।  স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া পথে রাত ৩ টার দিকে মারা যান। এর পর থেকেই ছেলে রহিম পলাতক ছিল।
এ ব্যাপারে পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রোকনুজ্জামান সরকার বলেন, এ ঘটনার পর থেকেই পাবনার পুলিশ সুপার মামলাটি বিশেষ গুরুত্ব দেন। পালাতক ছেলেকে গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছিল। গত শনিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পাবনা থেকে পুলিশের একটি দল ঢাকায় অভিযান চালিয়ে পালাতক আসামী নিহতের ছেলে আব্দুর রহিমকে গ্রেফতার করে।
গ্রেফতারের পর সে পিতাকে হত্যার কথা স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *