পরিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে জেলায় ১ লক্ষ ৮৬ হাজার ৯শ ৫৯ পরিবার পাচ্ছে ভিজিএফ সহায়তা

নওগাঁ প্রতিনিধি : আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলেক্ষ্য জেলার ১ লক্ষ ৮৬ হাজার ৯শ ৫৯টি দরিদ্র পরিবারের মধ্যে বিশেষ ভিজিএফ কর্মসূচীর আওতায় আর্থিক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

জেলা ত্রান ও পুনর্বাসন কর্মকর্তার দপ্তর সূত্রে জানা গেছে পরিবার প্রতি ৪৫০ টাকা হারে মোট ৮ কেটি ৪১ লক্ষ ৩১ হাজার ৫শ৫০ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে যা জেলার ১১টি উপজেলা এবং তিনটি প্যৌরসভার মাধ্যমে বিতরন কার্যক্রম চলছে।

জেলা ত্রান ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মোঃ কামরুল আহসান জানিয়েছেন পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে প্রধানমনাত্রীর নির্দেশে বিশেষ এই ভিজিএফ সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। তাঁর দেয়া তথ্য অনুযায়ী উপজেলা ভিত্তিক বরাদ্দকৃত ভিজিএফ প্রাপ্ত পরিবারের সংখ্যা ও টাকার পরিমান হচ্ছে নওগাঁ সদর উপজেলায় ২২ হাজার ১শ ৩৬ পরিবারের মধ্যে ৯৯ লক্ষ ৬১ হজার ২শ টাকা, বদলগাছি উপজেলায় ১৩ হাজার ৮শ ৮৩ পরিবারের মধ্যে ৬২ লক্ষ ৪৭ হাজার ৩শ ৫০ টাকা, মহাদেবপুর উপজেলায় ১৩ হাজার ৫শ ২৪ পরিবারের মধ্যে ৬০ লক্ষ ৮৬ হাজার ২শ ৫০ টাকা, পতœীতলা উপজেলায় ১২ হাজার ৬২ পরিবারের মধ্যে ৫৪ লক্ষ ২৭ হাজার ৯শ টাকা, ধামইরহাট উপজেলায় ১২ হাজার ৭শ ৫৫ পরিবারের মধ্যে ৫৭ লক্ষ ৩৯ হাজার ৭শ ৫০ টাকা, সাপাহার উপজেলায় ২৬ হাজার ৪শ ৪২ পরিবারের মধ্যে ১ কোটি ১৮ লক্ষ ৯৮ হাজার ৯শ টাকা, নিয়ামতপুর উপজেলায় ১৩ হাজার ৪শ ৬০ পরিবারের মধ্যে ৬০ লক্ষ ৫৭ হাজার টাকা, পোরশা উপজেলায় ২৪ হাজার ৭শ ৪৬ পরিবারের মধ্যে ১ কোটি ১১ লক্ষ ৩৫ হাজার ৭শ টাকা, মান্দা উপজেলায় ১৭ হাজার ৬শ ২০ পরিবারের মধ্যে ৭৯ লক্ষ ২৯ হাজার টাকা, আত্রাই উপজেলায় ৯ হাজার ২শ ৬৬ পরিবারের মধ্যে ৪১ লক্ষ ৬৯ হাজার ৭শ টাকা, রানীনগর উপজেলায় ৮ হাজার ৭শ ৪১ পরিবারের মধ্যে ৩৯ লক্ষ ৩৩ হাজার ৪শ ৫০ টাকা, নওগাঁ পৌরসভা এলাকায় ৪ হাজার ৬শ ২১ পরিবারের মধ্যে ২০ লক্ষ ৭৯ হাজার ৪শ ৫০ টাকা, নজিপুর পৌরসভা এলাকায় ৪ হাজার ৬শ ২১ পরিবারের মধ্যে ২০ লক্ষ ৭৯ হাজার ৪শ ৫০ টাকা এবং ধামইরহাট পৌরসভা এলাকায় ৩ হাজার ৮১ পরিবারের মধ্যে ১৩ লক্ষ ৮৬ হাজার ৪শ ৫০ টাকা।

জেলা প্রশাসর মোঃ হারুন-অর-রশিদ জানিয়েছেন একদিকে করোনা পরিস্থিতি অন্যদিকে ঈদ উপলক্ষে কোন লোক যাতে অনাহারে না থাকে সেই লক্ষে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে অত্যন্ত স্বচ্ছভাবে এসব পরিবারের মধ্যে ভিজিএফ-এর অর্থ বিতরন করা হচ্ছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *