বাঘায় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে গৃহবধুকে পালাক্রমে গণধর্ষণ

বাঘা(রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাঘায় স্বামী বাড়িতে না থাকার সুবাদে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে এক গৃহবধুকে পলাক্রমে গণধর্ষণ করা হয়েছে। সোমবার রাতে উপজেলার কলিগ্রাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ মঙ্গলবার(৪-মে) সকালে সুরুজ মালিথা নামে এক ধর্ষককে আটক করেছে।
বাঘা থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার কলিগ্রাম এলাকার জনৈক দিন মজুর অত্র এলাকায় এই মুহুর্তে কাজ না থাকায় তিনি নাটোর অঞ্চলে ৫ দিন পূর্বে ধান কাটার কাজে যান। আর এ সুযোগটি কাজে লাগিয়েছে ঐ এলাকার তিন ব্যাক্তি। এলা হলো কলিগ্রাম এলাকার এলু মালিথার ছেলে ঝুন্টু মালিথা (৩৫), রুবান মালিথার ছেলে সুরুজ মালিথা (৩৬) এবং গুলমাল প্রাং এর ছেলে রুজদার (৪২)।
বাঘা থানা সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত সাড়ে ১১ টায় বাড়ির প্রধান গেইটে লাগানো টিনের দরজা ভেঙ্গে অভিযুক্তরা বাড়ির ভেতর প্রবেশ করার সময় শব্দ শুনে ঘরের প্রধান দরজা খুলে বাইরে বের হয় গৃহবধু। এ সময় উল্লেখিত ব্যাক্তিরা হাসুয়া এবং চাকুর মুখে জিম্মি করে গৃহবধুকে পালাক্রমে গনধর্ষণ করে। এ ঘটনায় সকালে গৃহবধু নিজে বাদি হয়ে বাঘা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলার ভিত্তিতে পুলিশ মঙ্গলবার সকালে কলিগ্রাম এলাকা থেকে সুরুজ মালিথাকে আটক করে।
বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি)নজরুল ইসলাম জানান, গৃহবধু গণধর্ষণের মামলা দায়ের করলে পুলিশ তৎক্ষনাত সুরুজ মালিথা নামে একজন আসামীকে আটক করে পুলিশ। দুপুরে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। একই সাথে গৃহবধুকে ডাক্তারী পরীক্ষা-নিরিক্ষার জন্য রামেক হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যন্য আসামীদের আটকের চেষ্ঠা অব্যাহত আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *