নতুন ২ জন আক্রান্তসহ গোমস্তাপুরে মোট শনাক্ত ১২

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ নতুন করে ২ জন আক্রান্তসহ গোমস্তাপুরে মোট শনাক্ত ১২জন। নতুন শনাক্ত ২ জনের মধ্যে একজন মহিলা রয়েছে। গত সোমবার রাতে রাজশাহীর পিসিআর ল্যাব থেকে তাদের রির্পোট পজিটিভ আসে। তারা বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছে।
গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা মনিটরিং অফিসার ডা. হাসান আলী জানান, গত সোমবার রাতে রাজশাহীর পিসিআর ল্যাব ২ জনের করোনা রির্পোট পজিটিভ আসে। আক্রান্তের মধ্যে গোমস্তাপুর ইউনিয়নের ৬০ বছরের এক বৃদ্ধা মহিলা, অপরজন নিয়ামতপুর উপজেলার ৭২ বছেরের এক বৃদ্ধ। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়ে তাদের বাড়িতে আইসোলোশনে রয়েছে। এ নিয়ে গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা সংগ্রহ করে মোট ১২ জন রোগী শনাক্ত হল। এর মধ্যে গোমস্তাপুর উপজেলার ১০ জন, নাচোল ও নিয়ামতপুর উপজেলার একজন করে।
তিনি আরোও জানান, শনাক্ত ১২ জন রোগীর মধ্যে ১ জন মৃত্যুবরণ,২জন রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তিসহ অন্যরোগীরা বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছে।

নেসকো গ্রাহকদের বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিরসনে চলতি মাসেই গোমস্তাপুরে নতুন সঞ্চালন লাইন যুক্ত হচ্ছে।
গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ গোমস্তাপুর ও নাচোল উপজেলার নেসকো গ্রাহকদের বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিরসনে চলতি মে মাসেই গোমস্তাপুরে নতুন সঞ্চালন লাইন যুক্ত হচ্ছে। দীর্ঘদিন থেকে দু’উপজেলার গ্রাহকরা সংযোগ লাইনটি চালু করার জন্য দাবি জানিয়ে আসছিল। ঘনঘন লোডশেডিং এর কারণে ক্ষোভ বিরাজ করছিল। চলতি মাসে সঞ্চালনের সংযোগ লাইনটি চালুর খবরে এলাকাবাসির মধ্যে স্বস্তির নিঃশেষ ফেলেছে।
নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানী (নেসকো) লিমিটেডের গোমস্তাপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হান্নান জানান, দীর্ঘদিন থেকে গোমস্তাপুর ও নাচোল উপজেলায় ঘনঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাট কারণে অসন্তুষ্ট গ্রাহকরা। এ নিরসনের জন্য উৎপাদিত আমনুরা থেকে নাচোল হয়ে রহনপুর পর্যন্ত সঞ্চালন লাইনটি চালুর প্রক্রিয়াধীণ ছিল। তবে চলতি মে মাসেই এ নতুন সংযোগটি লাইনটি চালু হবার কথা। তিনি আরও জানান, জরাজীর্ণ রহনপুর -চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৩৩ কেভি সঞ্চালন লাইনটি স¤প্রতি রহনপুর -চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়কের পাশে নেয়া হয়েছে। লাইনে ত্রুটি দেখা দিলেই সহজেই মেরামত করা সম্ভব হবে। এছাড়া সাব স্টেশনে নির্মানাধীন নতুন একটি ইউনিট চালু হলে লোড ম্যানেজমেন্টের সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া ঘন ঘন বিদ্যুত বিভ্রাট প্রসঙ্গে তিনি জানান,গত এপ্রিল মাসে বিদ্যুতের ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়।
এদিকে গোমস্তাপুর ও নাচোল উপজেলায় বিদ্যুত বিভ্রাট বেড়ে যাওয়ায় গ্রাহকদের মাঝে ক্ষোভ বৃদ্ধি পাওয়ায় এলাকার সাবেক সাংসদ ও জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি জিয়াউর রহমান নেসকোর রাজশাহী অঞ্চলের ঊদ্ধর্তন কর্মকর্তাদের মুঠোফোনে সাথে কথা বলেন। এলাকার বিদ্যুৎ সমস্যা চিত্রগুলো তুলে ধরেন। তার আলাপচারিতায় আমনুরা থেকে রহনপুরে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালুকরনের বিষয়টি প্রাধান্য পায়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *