প্রতারক রাব্বিকে গ্রেফতারের পর অনেকেই এখন ভীত ও আত্মগোপনে

বাঘা(রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাঘায় পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজিপি) সোর্স দাবি করা রাব্বি হাসান নামে এক প্রতারককে থানায় গ্রেফতার ও তার মোবাইল ফোন জব্দ করার পর বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। ইতোমধ্যে রাব্বির সাথে সম্পৃক্তদের অনেকেই ভীত এবং আত্মগোপনে অবস্থান করছেন বলে নিশ্চিত করেন স্থানীয় একধিক ব্যাক্তি।
বৃহস্পতিবার রাতে আলোচিত এই রাব্বি হাসানকে গ্রেফতার করে বাঘা থানা পুলিশ। তার বাড়ি উপজেলার চক নারায়নপুর গ্রামে। তার নামে বাঘা সহ বিভিন্ন থানায় মাদক, নারী নির্যাতন ও চাঁদাবাজিসহ ৭ টি মামলা রয়েছে। সে অত্র এলাকায় ইমো হ্যাকারের সাথে সম্পৃক্ত বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেন। এর আগে সে পুলিশের তথা কথিত সোর্স হিসাবে এলাকায় পরিচিতি লাভ করে। তার এসব অনৈতিক কর্মকান্ডে বিব্রত ও চিন্তিত এলাকার সুধী মহল।
উল্লেখ্য এপ্রিল মাসের ৪ তারিখ রাব্বি হাসান সহ তার অপর তিন সহযোগীকে মাদক সহ উপজেলার সুলতানপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ নিয়ে বিভিন্ন গমমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। ঘটনার ১৫ দিন পর হাজত থেকে বেরিয়ে আসে রাব্বি। অত:পর একটি নতুন এ্যাপাসী মোটর সাইকেল কিনে এলাকায় দাপিয়ে বেড়াতে শুরু করে। এ নিয়ে আরো একটি ফলোআপ সংবাদ প্রকাশ করেন বাঘার সাংবাদিকেরা।
এর পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঐ সাংবাদিকের নামে মিথ্যা এবং অসত্য কথা লিখে তার মানখুন্য করার চেষ্টায় লিপ্ত হয় প্রতারক রাব্বি হাসান ও তার সহযোগীরা।এ নিয়ে রাব্বির বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন বাঘার এক সাংবাদিক। তারপর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেন
বাঘা থানা সূত্রে জানা যায়, রাব্বি হাসান নিজেকে পুলিশের আইজিপি সহ অন্যান্য বড়-বড় পুলিশ কর্মকর্তাদের সাথে তার ব্যাক্তিগত পরিচয় এবং সুখ্যাতি রয়েছে বলে এলাকার বিভিন্ন মানুষের সাথে প্রতারনা করে আসছিল। এমন সংবাদের ভিত্তিতে বাঘা থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে নিজ বাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করে।
বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, রাব্বিকে গ্রেফতার ও তার মোবাইল ফোন জব্দ করার পর আমরা বেশ কিছু তথ্য পেয়েছি। যেটা তদন্তের সার্থে এই মুহুর্তে বলা সম্ভব হচ্ছে না। তবে রাব্বির সাথে সম্পৃক্তদের অনেকেই এখন ভীত-তটস্থ এবং আতœগোপনে অবস্থান করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *