বাঘায় বিপাকে পড়া কৃষকের ধান কেটে দিল রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি : লকডাউন শ্রমিক ও অর্থ সংকটের কারণে দেড় বিঘা জমির পাকা ধান কাটতে পারছিলেন না রাজশাহীর বাঘা উপজেলার গড়গড়ি ইউনিয়নের সুলতান গ্রামের কৃষক হাফিজুর রহমান। ক্ষেতেই ধান নষ্ট হওয়ার উপক্রম হচ্ছি। খবর পেয়ে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের পক্ষে জেলা ছাত্রলীগ নেতা শাকিবুল ইসলাম রানা কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে ছুটে যান তাকে সাহায্য করতে।
রাজশাহী জেলা পর্যায়ের ছাত্রলীগের ১২ জন নেতাকর্মী নিয়ে রবিবার সকালে থেকে কৃষক হাফিজুর রহমানের দেড় বিঘা জমির ধান কেটে বাড়িতে তুলে দেন তারা। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কৃষেকের ক্ষেতের ধান কাটতে দেখে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন সচেতন মহলসহ স্থানীয়রা। কৃষক হাফিজুর রহমান আপ্লত হয়ে তাদের প্রশংসা করেন।
এ সময় তিনি বলেন, লকডাউনের মধ্যে ধান কাটার উপযুক্ত হয়। লকডাউনে শ্রমিক সংকটের কারণে পাকাধান কাটতে পারছিলাম না। এছাড়া এলাকায় যে শ্রমিক পাওয়া যায় তাদের মজুরি খুব বেশি। ক্ষেতের ধান পাকার পরও তা কাটতে না পারায় কিছুটা ক্ষতির শস্কায় ছিলাম। আমার এমন অসহায়ত্বেও কথা শুনে ছাত্রলীগ নেতা শাকিবুল ইসলাম রানা ভাই আরো নেতাকর্মী সঙ্গে নিয়ে এসে টাকা-পয়সা ছাড়াই আমার দেড় বিঘা ক্ষেতের ধান কেটে দেন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যেভাবে আমার ধান কাটতে সাহায্য করেছেন তা কখনো ভুলব না।
ছাত্রলীগ নেতা শাকিবুল ইসলাম রানা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও আমাদের প্রিয় নেতা বাঘা-চারঘাট আসনের এমপি ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের অনুপ্রেরণায় অসহায় ও দরিদ্র কুষকদের ধান কেটে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেই। কৃষক হাফিজুর রহমানের দেড় বিঘা জমির পাকা ধান কাটতে না পেরে বিপাকে পড়েন। তার অসহায়ত্বের কথা শুনে ছাত্রলীগের জেলা নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে তার ধান কেটে দিয়েছি। এ সংকটকালে প্রয়োজনে এমন অসহায়দের ধান আরো কেটে দেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *