গোমস্তাপুর লকডাইনের লোকসমাগম ও যান চলাচল বেড়েছে,আক্রান্ত ৩

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ লকডাউনের ৯ দিনে চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে হাট-বাজার, পথ-ঘাটে লোকসমাগম ও যান চলাচল বৃদ্ধি পেয়েছে। উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ নানা তৎপরতা দেখালেও সাধারণ জনগণ মানছেন লকডাউনের নিয়োমকানুন। এ পর্যন্ত উপজেলায় করোনায় সংক্রমন হয়েছে ৩ জন।
উপজেলার প্রধান প্রধান মোড়, রহনপুর কলেজমোড়, খোয়াড়মোড়, মাধাইপুর মোড়, ডোবার মোড়, দায়েমপুর বাজার,আড্ডা মোড়,জিনারপুর মোড়, আলিনগর বাজার, সন্তেষপুর বাজার, বোয়ারিয়া বাজার গোমস্তাপুর বাজার, চৌডালা বাজার, আক্কেলপুর বাজার, যাতাহারা বাজার ঘুরে দেখা গেছে যানবাহন ও জনসাধারণের উপস্থিতি ছিল অনেক। খোলা ছিল বেশীরভাগ দোকানপাট। উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দোকানপাটগুলো বন্ধ করে চলে যায়। পরে প্রশাসনের লোকজন একটু দূরে গেলেই আবার তারা দোকান খুলে দিচ্ছে। এছাড়া উপজেলার প্রানকেন্দ্র উপজেলা চত্ত্বর,স্টেশন বাজার,রহনপুর বড় বাজারের দৃশ্য একই।
এদিকে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ থাকলেও ভ্যানগাড়ী, অটোরিক্সা ও সিএনজি সাধারণ মানুষের চলাচলের উপস্থিতি বেশী ছিল। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের কাঁচাবাজারে লোকসমাগম দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েছে। সেখানে শারীরিক দুরত্ব বজায় থাকছেনা, মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্যবিধি। অনেকে মাক্স না পড়েই বিনা কারণে রাস্তাঘাটে চলাফেরা করছে।
তবে পুলিশ বিভিন্ন মোড়েমোড়ে তাদের উপস্থিতি লক্ষ্য করাসহ অনেক যানবাহন আটক করতে দেখা গেছে। মাইকিং করে জনগণকে সচেতণ ও সরকার ঘোষিত আইন মেনে চলার আহবান জানাচ্ছেন।
অন্যদিকে উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও এসিল্যান্ড শাহ্রিয়ার নজির উপজেলার বিভিন্ন স্থানে স্বাস্থ্যবিধি না মানাসহ বাজার তদারকিতে অর্থদন্ড প্রদান করছেন।
সচেতনতা মহলের দাবি,লকডাউন কার্যকরে আরো কঠোর হতে হবে প্রশাসনকে। বিনা প্রয়োজনে বাইরে বেড়াতে রুখতে হবে।
প্রসঙ্গত; গোমস্তাপুর উপজেলায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গত ৬ দিনে ৩ জন ব্যক্তির দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *