নাচোলে ৩৫দিন পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন

 নাচোল (চাঁপাইনবয়াবগঞ্জ)  প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে আদালতের নির্দেশে ময়নাতদন্তের জন্য  দাফনের ৩৫দিন পর কবর থেকে    নাচোল সদর ইউনিয়নের ভেরেন্ডি গ্রামের  মৃত জোহাক আলীর ছেলে  তোজাম্মেল হক তজলু(৫০) লাশ উত্তোলণ করা হয়েছে।
১৮ মার্চ  বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বেনীপুর সুকতলা কবরস্থান থেকে লাশ উত্তোলন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন,  ম্যাজিস্ট্রেট চন্দন কর, নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাঃ শাকিল মাহমুদ, নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা, ওসি(তদন্ত) আব্দুল ওয়াহাব,  এসআই গোলাম রসুল,মামলার বাদি বাবলু।
উল্লেখ্য, উপজেলার ভেরেন্ডী বাজার থেকে গত ৭ ফেব্রুয়ারী নিখোঁজ হন উপজেলার বেনীপুর সুকতলা গ্রামের মৃত-জোহাক আলীর ছেলে তোজাম্মেল হক তজলু(৫০)। খবর পেয়ে ঘটনার পরদিন(৮ ফেব্রুয়ারী) ভেরেন্ডী বাজারের মোবাইল টাওয়ারের পাশ থেকে একটি পরিত্যাক্ত রিং পাটের ভিতর থেকে তজলুর মৃতদেহ উদ্ধার করে তার স্বজনরা। ওই দিন বিকেলে তজলুকে তড়িঘড়ি করে বেনীপুর সুকতলা পাড়ার কবরস্থানে দাফন করা হয়। দাফনের পূর্বে তজলুর স্ত্রী আকতারা বেগম(৪২), বড় মেয়ে সাফিনা খাতুন(২৫) ছোট মেয়ে রোকসানা খাতুন(২৩) ও ছোট ছেলে সুমন(১৬)’র কাছ থেকে ইউপি সদস্য মোমিনুল ইসলাম সাদা কাগজে স্বাক্ষর করিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগে জানান মামলার বাদি মৃতের ভাতিজা নিয়ামতপুর উপজেলার মুন্দিখোর গ্রামের মৃত বেলাল উদ্দিন এর ছেলে বাবলু। বাদি আরও জানান, মৃত তজলুকে গোসল দেওয়ার সময় তজলুর বাম পা, বাম হাত ও সামনের পাটির দাঁত ভাঙ্গা ছিলো বলে মৃতের ছেলে সুমন দাবী করে।
তজলুর রহস্যজনক মৃত্যুতে তার ভাতিজা নাচোল থানায় হত্যা মামলা দয়ের করতে গেলে নাচোল থানাপুলিশের পরামর্শে  নিহতের ভাতিজা বাবলু গত ১৫ফেব্রুয়ারী সোমবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল আমলী আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি এফ আই আর হিসেবে রেকর্ড করার জন্য ওসি নাচোল থানাকে নির্দেশ  প্রদান করেন।
 বাদীর আবেদনের পেক্ষিতে  ১৮ মার্চ বৃহস্পতি বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মৃত তজলুর লাশ ময়না তদন্তের জন্য উত্তোলণ করে মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *