করোনা ভাইরাসে ক্ষতিপূরনের দাবিতে প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলামের ব্যতিক্রমী প্রচারনা

আবু বাককার সুজন বাগমারা (রাজশাহী): প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশের সব ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরনের দাবি বাস্তবায়নে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে এক ব্যতিক্রমী প্রচারনা চালিয়ে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন কোভিড-১৯ অ্যাসোশিয়েশনের ম্যানেজিং ডিরেক্টর প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম। ঢাকাস্থ কোভিড-১৯ অ্যাসোশিয়েশন নামক একটি বেসরকারী সংস্থার পক্ষ থেকে লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে প্রাণঘাতি এই বরোনা ভাইরাস সৃষ্টিকারী দেশের কাছে তিনি এই দাবি জানিয়েছেন।
জানা যায়, গত এক সপ্তাহ ধরে রাজশাহীর বাগমারায় এবং নওগাঁর মান্দা ও আত্রাই উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে, রাস্তার মোড়ে মোড়ে এবং বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে লিফটেল বিতরণ করে প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশের সব ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরনের দাবি বাস্তবায়নের জন্য জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে ব্যতিক্রমী প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন কোভিড-১৯ অ্যাসোশিয়েশনের ম্যানেজিং ডিরেক্টর প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম। তার বিতরণকৃত লিফলেটে দাবি করা হয়েছে- প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) কোথায় থেকে উৎপত্তি হয়েছে ? তার মূল রহস্য উদঘাটনের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করতে হবে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশের যে সব নিরিহ মানুষ মারা গেছেন তাদের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। এছাড়া যারা আক্রান্ত হলেও ব্যাপক অর্থ ব্যায় করে চিকিৎসা গ্রহণের মাধ্যমে ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে গেছেন তাদেরকেও ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। কারণ বাংলাদেশ একটি গরিব দেশ। এই দেশের বেশিরভাগ মানুষই কৃষিজীবি, দিনমজুর ও নি¤œ আয়ের শ্রমজীবি সাধারণ মানুষ।
লিফলেট বিতরনকালে প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে বক্তব্যে দাবি করেছেন- আমেরিকা, ইংল্যান্ড, কানাডা, অষ্ট্রোলিয়া, ফ্যান্স, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে চীনের ইউহান শহরের একটি ল্যাব থেকেই সম্ভবত এই করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সৃষ্টি করা হয়েছে। তাই ওইসব ধনী দেশগুলোর দাবির সাথে আমিও একমত পোষণ করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্তৃপক্ষের কাছে নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে এই প্রাণঘাতি ভাইরাসের উৎপত্তি বা সৃষ্টির মূল রহস্য উদঘাটনের জন্য জোরালো দাবি জানাচ্ছি। তার এই দাবি বাস্তবায়নের জন্য সারা দেশের জনগণকে একমত পোষণ করে দাবি আদায়ে মাঠে নামার জন্যও আহ্বান জানান তিনি। তার এই ব্যতিক্রমী দাবি আদায়ের প্রচারনা শুধু এ এলাকায় সীমাবদ্ধ থাকবেনা। প্রয়োজনে পর্যায়ক্রমে সারা দেশব্যাপী এ বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে প্রচারনা চালিয়ে যাবেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *