বাঘায় জমি নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে তিন নারী সহ আহত- ৮

বাঘা(রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাঘায় জমি-জমা নিয়ে স্বপন সাহা এবং উত্তম সাহা এই দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় তিন নারী সহ ৮ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৬ জনকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।শনিবার(৬-ফেব্রুয়ারী)সকাল ৯ টায় উপজেলার নারায়নপুর এলাকায় অবস্থিত কেন্দ্রীয় পুজা মন্ডপের পাশে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
আহতরা হলেন স্বপন পক্ষের তিনি নিজে (৫১) ও তার বোন ছবি সাহা(৪৮)তুষার(২২) এবং জুতি সাহা(২০)। এদের প্রত্যেককে স্থানীয় বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।
অপর দিকে উত্তম পক্ষে আহত হয়েছেন তার ছোট ভাই অপুর্ব সাহা(৪২), বিক্রম জিত সাহা(৪৮), বিদ্যুৎ সাহা(৩৫) এবং কবিতা সাহা (৪০)। হাসপাতালে ভতি রয়েছেন।
স্থানীয় লোকজন জানান, উপজেলার নারায়নপুর কেন্দ্রীয় পুজা মন্ডপ এর পাশে পল্লী চিকিৎসক শ্রী-উত্তম কুমার সাহা এবং তার চাচাতো ভাই শিক্ষক শ্রী-স্বপন সাহার সাথে জমি-জমা এবং পূজা মন্ডপে যাওয়ার রাস্তা নির্মান দিয়ে দির্ঘ দিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। এই বিরোধকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি বাঘা পৌর সভার মেয়র আব্দুর রাজ্জাক ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ একটি (শালিস)আপোশ-মিমাংসা কওে দিয়েছেন। সে মর্মে স্বপন সাহা তাঁর পুর্বের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে পাঁচ ফিট দুরে নুতন করে কাজ শুরু করেন।
এ দিক থেকে উত্তম সাহাকে তার সীমানা প্রাচীরের প্রবেশ মুখে চার ফিট ভেঙ্গে সেটিকে সরিয়ে নতুন ভাবে প্রাচীর নির্মান করার নির্দেশ দেন শালিস বোর্ড। পরবর্তীতে স্বপন সাহা শালিসের নির্দেশ মেনে তাঁর প্রাচীর ভেঙ্গে নতুন করে কাজ শুরু করলেও উত্তম সাহা ও তার ভাই অপুর্ব সাহা সেটি আংশিক ভেঙ্গে কাজ বন্ধ রাখেন। এতে করে উভয় পক্ষে মধ্যে চাপা উত্তেজনা চলতে থাকে।
এদিকে উক্ত ঘটনা অবগত হয়ে গত তিনদিন পুর্বে সেখানে উপস্থিত হন বাঘা পৌর সভার মেয়র আব্দুর রাজ্জাক, প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াহেদ সাদিক কবির,বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা শী-অশিত কুমার ওরুপে বাকু পান্ডে।
তারা উত্তম সাহা এবং তার ভাই অপুর্ব সাহাকে অবিলম্বে শালিসের রায় মোতাবেক তাদের প্রাচীর সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেন। এ নির্দেশ তারা তাৎক্ষনাত মানলেও পরবর্তীতে মাত্র একজন লেবার নিয়ে নির্মিত প্রাচীরের উপর থেকে এক ফিট ভেঙ্গে কাজ বন্ধ করে দেন।
এ খবর শোনার স্বপন সাহাকে পুর্বের জায়গায় প্রাচীর নির্মানের অনুমতিদেন। সে মোতাবেক শনিবার স্বপন সাহা নতুন করে কাজ শুরু করতে গেলে অপুর্ব এবং তার ভাই উত্তম সাহা তাদের লোকজন নিয়ে অতর্কিত স্বপন সাহা এবং তার ভাতিজা তুষারের উপরে আক্রমন করে। এ সময় তার বোন ছবি সাহা ও ভাচতি জুথি এগিয়ে এলে উভয় পক্ষের মাধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, উভয় পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়েছি।শনিবার উভয় পক্ষের সংঘর্ষ নিয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *