রাজশাহীতে জনশুমারি ও গৃহগণনা কার্যক্রম বিষয়ক জরিপ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সারাদেশে আগামী ২৫- ৩১ অক্টোবর-২০২১ ৬ষ্ঠ জনশুমারি ও গৃহগণনা কার্যক্রম শুরু হবে। রাজশাহী মহানগরীতে জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২১ এর প্রস্তুতিমূলক প্রথম জোনাল অপারেশন কার্যক্রম বিষয়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন শুমারী/জরিপ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন শুমারী/জরিপ কমিটির সভাপতি ও মাননীয় সিটি মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।
সভাপতির বক্তব্যে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, দেশের সকল উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ বাস্তবায়নে জনশুমারি ও গৃহগণনা শুমারি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আদমশুমারি বা জনশুমারি কার্যক্রম যেন নির্ভূল হয় সেজন্য এ কাজে সংশ্লিষ্ট সকলকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে।
তিনি বলেন, মহান স্বাধীনতা অর্জনের পর বাংলাদেশে ৫ বার জনশুমারি ও গৃহগণনা কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম আদমশুমারি অনুষ্ঠিত হয় ১৯৭৪ সালে। ১৯৭৪ সালের ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর ধানমন্ডিস্থ বাসভবনে বাংলাদেশের প্রথম আদমশুমারি কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। বর্তমান সরকার এ কার্যক্রমকে আরোও যুগোপযোগী করতে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করছে। জিআইএস পদ্ধতি ব্যবহার করে দেশের সকল এলাকা ম্যাপ ও জিও কোডের আওতায় স্বতন্ত্র সনাক্তকরণ নম্বরের মাধ্যমে চিহ্নিত করা। শুমারি পরিচালনায় দেশের সকল খানা, ব্যক্তি এবং আবাসন ইউনিট গণনা করা। শুমারি পরবর্তী জরিপ পরিচালনা শুমারির গুণগত মান পরিমাপ করা, আর্থ-সামাজিক ও জনমিতিক জরিপ পরিচালনা খানা ও জনসংখ্যা সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করা হবে। ব্যাপক প্রচারণার মাধ্যমে এ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নে জনপ্রতিনিধিদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে।
সভায় বিভাগীয় পরিসংখ্যান কার্যালয় রাজশাহীর যুগ্ম পরিচালক এস.এম আনিসুজ্জামান জনশুমারি ও গৃহগণনা বিষয়ে সার্বিক কার্যক্রমের তথ্য চিত্র উপস্থাপন করেন।
“জনশুমারী আয়োজন, সমৃদ্ধি ও উন্নয়ন জনশুমারীতে তথ্য দিন, পরিকল্পিত উন্নয়নে অংশ নিন” শ্লোগানকে সামনে রেখে বিভাগীয় পরিসংখ্যান অফিস রাজশাহী ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের যৌথ আয়োজনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধীন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন জনশুমারি ও গৃহগণনা এর প্রস্তুতিমূলক প্রথম জোনাল অপারেশন কার্যক্রম বিষয়ক অনুষ্ঠিত এ সভায় মঞ্চে উপবিস্ট ছিলেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র-২ ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, কমিটির সদস্য রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিন, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার সাজিদ হোসেন। সভায় মুক্ত আলোচনায় রাসিকের কাউন্সিলরবৃন্দ, কমিটির সদস্যবৃন্দ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মতামত ব্যক্ত করেন। সভায় রাসিকের কাউন্সিলরবৃন্দ, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রাজশাহী মহানগর ইউনিট কমান্ডার ডা. আব্দুল মান্নান, দৈনিক সোনালী সংবাদের সম্পাদক লিয়াকত আলী, চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মনিরুজ্জামান, মাননীয় মেয়রের একান্ত সচিব আলমগীর কবির, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবু সালেহ মোঃ নুর-ঈ-সাঈদ, বিভাগীয় পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মাহমুদা বেগম, জেলা সহকারী পরিসংখ্যান অফিসার আসিফ ইকবাল ও জোনাল কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *