রহনপুর পৌর নির্বাচন, উত্তাপ ছড়াচ্ছে বিদ্রোহী প্রার্থীরা

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে উত্তাপ ছড়াচ্ছে মূল দুটি দলের বিদ্রোহী প্রার্থীরা। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে দিন দিন উত্তাপ বেড়েই চলেছে। বিশেষ করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী গোলাম রাব্বানী বিশ্বাস ও বিদ্রোহী প্রার্থী মতিউর রহমান খানের কর্মী- সমর্থকদের মাঝে উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে। দুই প্রার্থীর মধ্যে চলছে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ করা হয়েছে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন। হয়েছে থানায় মামলা। গ্রেপ্তার আতঙ্কে স্বতন্ত্র প্রার্থী মতির কর্মী-সমর্থকরা গা-ঢাকা দিয়েছে। এদিকে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকা-ের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন। করছেন প্রচার-প্রচারনায় ও ভোট প্রার্থনা। এবার মেয়র পদে ৭ জন প্রতিদ্বন্দীতা করছেন। তারা হলেন, আওয়ামীলীগ মনোনীত গোলাম রাব্বানী বিশ্বাস, বিএনপি মনোনীত বর্তমানে মেয়র তারিক আহমদ, স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মতিউর রহমান খান মতি, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী ডা: মফিজউদ্দিন ও আশরাফুল ইসলাম, বাংলাদেশ কংগ্রেসের জোহনা খাতুন, নুরে আলম সিদ্দিকী বিপ্লব। এছাড়াও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৩ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে লড়ছেন ১৭ জন প্রার্থী।

নির্বাচনী এলাকায় ঘুরে দেখা যায়, কনকনে শীত উপেক্ষা করে নির্ঘুম প্রচারনায় ব্যাস্ত প্রাথীরা। পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে রহনপুর পৌর এলাকা। সাথে মাইকে মাইকে চলছে প্রার্থীদের প্রচারনা। পাড়া- মহল্লায়, হাটে-বাজারে, চায়ের আড্ডায় ভোটাররা হিসাব কষতে শুরু করেছেন। কে হচ্ছেন পরবর্তী পৌর পিতা। শুধু পৌর এলাকার ৯ টি ওয়ার্ড নয়, নির্বাচনের আমেজ ছড়িয়েছে পুরো গোমস্তাপুর উপজেলা জুড়ে।

যদিও, ভোটের অংকে প্রায় সময়ই এগিয়ে থাকে বড় দুটি রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা। তবে এবারের নির্বাচনে ভোটারদের মাঝে বিদ্রোহী প্রার্থীদের বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। ভোটাররা এর মধ্যে থেকেই তাদের যোগ্য পৌর পিতাকে বেছে নিবে। এ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম জানান, প্রার্থীরা তাদের আচরণ বিধি মেনে সুষ্ঠ নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহায়তা করবেন। আগামী ৩০ জানুয়ারি ৩য় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য এ পৌর নির্বাচনে ৯ টি ওয়ার্ডের ১১ টি কেন্দ্রে মোট ২৭ হাজার ৯৭ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রদান করবেন। এর মধ্যে ১৩ হাজার ১৮৪ জন পুরুষ ও ১৩ হাজার ৯১৩ জন মহিলা ভোটার রয়েছেন। ভোট হবে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *