মুজিব বর্ষের উপহার পেয়ে স্বপ্নে বিভোর বাঘার ১৬ গৃহ-ভূমিহীন পরিবার

বাঘা(রাজশাহী)প্রতিনিধি :“কোনোদিন ভাবিনি আমার নিজের একটি ঘর হবে। পরিবার নিয়ে এক সাথে থাকবো। সত্যিই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপা আমাদের মতো গরিবদের নিয়া ভাবেন।”নতুন একটি ঠিকানা পেয়ে এমনটি প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করলেন বাঘার ষাটোর্ধ্ব বয়স্ক পদ্মার চরাঞ্চলের লাইলী বেগম।
দুই বছর পূর্বে পদ্মার ভাঙ্গনে তাঁর বাড়ি নদীগর্বে বিলিন হয়ে যাই। সেই থেকে তিনি কখনো মেয়ে-জামাই,আবার কখনো-কখনো অন্যার বাড়ীতে কাজ করে জীবিকা নিরবরাহ করতেন। শুধু লাইলী বেগম নন, তার মতো এখন ঘর-জমি পেয়ে অনেকেই স্বপ্নে বিভোর।
শনিবার বেলা ১২ টায় আনুষ্ঠানিক ভাবে উপজেলার হেলালপুর গ্রামে গিয়ে তাদের ঘর-বাড়ী বুঝিয়ে দেন বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড: লায়েব উদ্দিন লাভলু- ভাইস চেয়ারম্যান মোকাদ্দেস আলী.মনিগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম এবং উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা বৃন্দ।
এর আগে সকাল ১১ টায় গণভবন থেকে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান অনুষ্ঠান সররাসরি পরিদর্শন করেন উপজেলার সকল সরকারি কর্মকর্তা বৃন্দ, জন প্রতিনিধি, পুলিশ,মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, শিক্ষক মন্ডলী ও সাংবাদিক-সহ সমাজের সুধীজন।
ঐ ভিডিও কনফারেন্সে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, মুজিব বর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্ত্রীতে কেউ গৃহহীন থাকবে না। তিনি বলেন, জাতীর পিতার পরিকল্পনা ছিল ভাগ্য উন্নয়ন। এ দিক থেকে জিয়াউর রহমান মানুষের ভাগ্য নিয়ে খেলা করেছে এবং নির্বাচন নিয়ে প্রহসন সৃষ্টি করেছে।
অথচ আমরা ঠিকানা বিহীন হতদরিদ্রদের মাথা গোজার ঠায় করে দিচ্ছি। তিনি বলেন, দীর্ঘ সংগ্রামের পর স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু। আমরা যদি মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে পারি ,তাহলে দেশের জন্য যারা শহীদ হয়েছেন তাদের আতœা শান্তি পাবে।
সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ক-শ্রেনীভূক্ত ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের জন্য ১ লক্ষ ৭১ হাজার টাকা ব্যায়ে “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৬৬ হাজার ১৮৯ টি পাকা বাড়ী নির্মান হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহীতে নির্মান হচ্ছে ৬৯২ টি। তবে বাঘা উপজেলায় বরাদ্দ এসছে ১৬টি পরিবারের নাম। যাদের প্রত্যেককে শনিবার জমির কাগজ সহ ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে।
বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা জানান,মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় নিজের বাড়ি পেয়ে যাওয়া ভূমিহীন-গৃহহীন মানুষগুলো এখন নতুন স্বপ্নে বিভোর। দেশজুড়ে বাস্তবায়িত এই কর্মসূচির আওতায় রাজশাহীর বাঘা উপজেলার মহদিপুর গ্রামে ভূমিহীন-গৃহহীন ১৬ টি পরিবারকে বিনা পয়সায় দুই কক্ষ বিশিষ্ট ঘর করে দেয়া হয়েছে। তারা ঘর পেয়ে মহাখুুশি
তিনি বলেন, আশ্রয়ন প্রকল্পের উদ্দেশ্য হল-ভূমিহীন, গৃহহীন, ছিন্ন অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসন, ঋণপ্রদান ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহে সক্ষম করে তোলা এবং আয়বর্ধক কার্যক্রম সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র্য দূরীকরণ। #

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *