বাগমারার দ্বীপপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়নের অভিযোগ

বাগমারা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:  রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার দ্বীপপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান দুলালের বিরুদ্ধে সরকারী প্রকল্পের অর্থ আতœসাৎসহ বিভিন্ন প্রকার অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় খোদ ওই ইউপি’র দুইজন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য হাসিনা বানু ও ফাতেমা খাতুন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক ও রাজশাহীর দূর্নীতি দমন বিভাগের উপ-পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে পৃথকভাবে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দ্বীপপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান দুলাল তথ্য গোপন করে কোনরুপ মিটিং এবং রেজুলেশন ছাড়াই বিগত চার বছর যাবৎ অনিয়মের মাধ্যমে টি.আর, কাবিখা, কাবিটা ও এডিপিসহ বিভিন্ন প্রকল্পের বিপুল পরিমান সরকারি অর্থ আত্মসাত করেছেন। ইউনিয়ন পরিষদের অধীনে উন্নয়নমূলক কাজের জন্য সরকারীভাবে যে অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয় তার কোন কাজ না করেই ভুয়া রেজুলেশন তৈরি করে এবং ইউপি’র সদস্যেদের স্বাক্ষর জাল করে পুরো অর্থ আত্মসাত করা হয়। তাছাড়া কোনো প্রকার মিটিং ছাড়াই নিয়মবর্হিভূতভাবে গোপনে ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান তৈরি করা হয়েছে। এসব বিষয় নিয়ে কোন ইউপি সদস্য প্রতিবাদ করলে তাদের ভাতা ও সরকারী প্রকল্পের বরাদ্দ বন্ধ করে দেয়া হয়। এর আগেও তার বিরুদ্ধে ভিজিডি’র চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে প্রতিবাদ করায় অভিযোগকারী সংরক্ষিত মহিলা সদস্য হাসিনা বানুসহ কয়েকজনকে লাঞ্চিত করা হয়।
এ বিষয়ে দ্বীপপুর ইউপির চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান দুলাল তার বিরুদ্ধে অনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অবৈধ দাবী না মানায় তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ করা হয়েছে।
বাগমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
বাগমারার দ্বীপপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়নের অভিযোগ
বাগমারা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার দ্বীপপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান দুলালের বিরুদ্ধে সরকারী প্রকল্পের অর্থ আতœসাৎসহ বিভিন্ন প্রকার অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় খোদ ওই ইউপি’র দুইজন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য হাসিনা বানু ও ফাতেমা খাতুন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক ও রাজশাহীর দূর্নীতি দমন বিভাগের উপ-পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে পৃথকভাবে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দ্বীপপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান দুলাল তথ্য গোপন করে কোনরুপ মিটিং এবং রেজুলেশন ছাড়াই বিগত চার বছর যাবৎ অনিয়মের মাধ্যমে টি.আর, কাবিখা, কাবিটা ও এডিপিসহ বিভিন্ন প্রকল্পের বিপুল পরিমান সরকারি অর্থ আত্মসাত করেছেন। ইউনিয়ন পরিষদের অধীনে উন্নয়নমূলক কাজের জন্য সরকারীভাবে যে অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয় তার কোন কাজ না করেই ভুয়া রেজুলেশন তৈরি করে এবং ইউপি’র সদস্যেদের স্বাক্ষর জাল করে পুরো অর্থ আত্মসাত করা হয়। তাছাড়া কোনো প্রকার মিটিং ছাড়াই নিয়মবর্হিভূতভাবে গোপনে ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান তৈরি করা হয়েছে। এসব বিষয় নিয়ে কোন ইউপি সদস্য প্রতিবাদ করলে তাদের ভাতা ও সরকারী প্রকল্পের বরাদ্দ বন্ধ করে দেয়া হয়। এর আগেও তার বিরুদ্ধে ভিজিডি’র চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে প্রতিবাদ করায় অভিযোগকারী সংরক্ষিত মহিলা সদস্য হাসিনা বানুসহ কয়েকজনকে লাঞ্চিত করা হয়।
এ বিষয়ে দ্বীপপুর ইউপির চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান দুলাল তার বিরুদ্ধে অনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অবৈধ দাবী না মানায় তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ করা হয়েছে।
বাগমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *