অসমাপ্ত কাজ বাস্তবায়নের লক্ষে আরেকবার দলীয় মনোনয়ন চান মুক্তার

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি : আমার উন্নয়ন দৃশ্যমান। আমি আড়ানী পৌর মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে গত ৫ বছরে অসংখ্য উন্নয়ন করেছি এবং বেশ কিছু উন্নয় প্রকল্প প্রকৃয়াধীন রয়েছে। দল যদি আমাকে আরেকবার মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি আমার অসমাপ্ত কাজ গুলো বাস্তবায়ন করবো। এমটি অভিমত ব্যাক্ত করেন আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তার আলী। সোমবার(৭-ডিসেম্বর ২০২০)দুপুরে পৌর কার্যালয়ে এক স্বাক্ষাতকারে স্থানীয় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
মুক্তার আলী বলেন, আগামী ১৬ জানুয়ারী আড়ানী পৌর নির্বাচন। এখানে সরকারি দল থেকে যে ৮ জন মনোনয়ন চেয়েছেন তার মধ্যে তৃণমুলের মতামত এবং উন্নয়নের অগ্রধারায় প্রার্থী নির্বাচন করতে হলে আমার কোন বিকল্প নাই। আমি ২০১৫ সালে বিপুল ভোটে আড়ানী পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়। এর আগে প্রয়াত মেয়র মিজানুর রহমান মারা যাওয়ার পর আমি ১ নং প্যানেল মেয়র হিসাবে (ভারপ্রাপ্ত) মেয়র এর দায়িত্ব পালন করি। তার আগে আমি পর-পর দুইবার আড়ানী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়ে ছিলাম। আমি কভিট ২০১৯ মোকাবেলায় সরকারি সহায়তা ছাড়াও আমার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে মানুষের দ্বারে-দ্বারে খাবার পৌঁছায়েছি।
এ ছাড়াও পৌর এলাকায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন, রাস্তাঘাট নির্মান, কাল-ভাট ব্রীজ তৈরী ,রাতে পৌর এলাকায় লাইটিং এর ব্যবস্থা, হাট-বাজার উন্নয়ন ও সেনিটেশান-সহ আমার অসংখ্য উন্নয়ন দৃশ্যমান। বর্তমানে কুয়েত এবং জলবায়ু ফান্ডের অর্থায়নে ১৬ কোটি টাকার উন্নয়ন মূলক কাজ চলমান। আমার বিশ্বাস জনগণ পৌর এলাকায় উন্নয়নের কথা চিন্তা করে আবারও তাদের মুল্যবান রায় আমাকে দিবেন।
তিনি বলেন, আজ যারা দলীয় মনোনয়ন চেয়ে উপজেলা আ’লীগের বর্ধিত সভায় ওয়াদা করছেন দল যাকে মনোনয়ন দিবে সবাই সেটি মেনে নিবেন। একই ওয়াদা ২০১৫ সালেও হয়েছিল। কিন্তু সে সময় অনেকেই আমার বিপক্ষে কাজ করেছে এবং গোপনে বিএনপিকে সমর্থন দিয়েছে। কিন্তু তার পরেও লাভ হয়নি। আমার জয়প্রিতা থেকে জনগণ আমাকে তাদের সু-চিন্তিত মতামতের উপর ভিত্তি করে সঠিক রায় প্রদান করেন এবং আমি মেয়র নির্বাচিত হয়।
নির্বাচন প্রসঙ্গে বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখেছেন, প্রিয় পৌরবাসী আপনারা বিবেচনা করে দেখেন আড়ানীকে দুর্নীতি ও চাঁদা মুক্ত করতে পেরেছি-কি না ? সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ী ভাইদের সুস্থ ও সুন্দর ভাবে ব্যবসা করে জীবন জীবিকার পথ প্রসস্ত করেছি-কি না ? তাই দল-মত-নির্বিশেষে আপনারা আর একটিবার আমাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন। তাঁর বিশ্বাস, দল তাকে মনোনয়ন দিলে তিনি আবারও বিজয়ী হবেন। আর সে লক্ষে তিনি বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় নির্বাচনী প্রচারনা চালানো সহ গণসংযোগ করছেন।
তাঁর শেষ ইচ্ছে ,এই মুহুর্তে যে সমস্ত উন্নয় প্রকল্প বাস্তবায়নের অপেক্ষায় রয়েছে সে গুলো তাঁর হাতে গড়া পরিকল্প না। যদি দল তাঁকে আরেকবার মনোনয়ন দেন, তাহলে অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজ গুলো তিনি বাস্তবায়ন করে এলাকায় প্রশংশীত হবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *