বাঘায় দলীয় মনোনয়ন পেতে প্রার্থীদের দৌড়-ঝাপ

মোঃ লালন উদ্দীন, বাঘা রাজশাহী : আগামী ১৬ জানুয়ারী ২০২১ অনুষ্ঠিত হবে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনকে ঘিরে দলীয় মনোনয়ন পেতে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে প্রার্থীদের দৌড়-ঝাপ। এখানে বুধবার সরকারী দল আওয়ামীলীগ বর্ধিত সভা করে ৮ জন প্রার্থীর নাম প্রেরন করেছে জেলায়। এ দিক থেকে বিরোধী দল বিএনপির মধ্যে দলীয় কোন্দল থাকায় এখন পর্যন্ত তারা কোন সিদ্ধান্তেই পৌঁছাতে পারেনি। তবে প্রচারনা চালাচ্ছেন ৪ প্রার্থী।
সরেজমিন ঘুরে লক্ষ করা গেছে,আসন্ন এই নির্বাচনকে সামনে রেখে জমে উঠেছে ব্যাপক প্রচার-প্রচারনা। অনেকেই মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়ে প্রচারণার অংশ হিসাবে পাড়া-মহল্লায় পোষ্টার সেঁটে দোওয়া চাওয়া-সহ তাদের যোগ্যতা জাহির করছেন। তবে এখন পর্যন্ত ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ থেকে ৮ জন এবং বিএনপি থেকে ৪ জন সর্বমোট ১২ প্রার্থীর প্রচারণা লক্ষ করা গেছে। তবে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য দলের শীর্ষ পর্যায়ে তদবির চালাচ্ছেন উভয় দলের প্রার্থীরা।
এদিক থেকে আড়ানী পৌর আওয়ামীলীগ নির্বাচন উপলক্ষে বুধবার সকালে আড়ানী মনোমহনী উচ্চ বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে বর্ধিত সভা করেছেন। এতে ৮ জন প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন চেয়েছেন। এরা হলেন, আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শহীদুজ্জামান সাইদ, পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন, যুগ্ম সম্পাদক মাসুদ পারভেজ কলিন্স, সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান পৌর মেয়র মুক্তার আলী, সদস্য গোলাম মোস্তফা, আড়ানী পৌর যুবলীগের সভাপতি কামরুল হাসান জুয়েল, আড়ানী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রিবন আহম্মেদ বাপ্পি ও মীর হনুফা নসিম।
বাঘা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল বলেন, আড়ানী পৌর নির্বাচন উপলক্ষে বর্ধিত সভা করেছি। এতে ৮ জন প্রার্থীর নাম উঠে এসছে। আমরা সকল প্রার্থীর নাম জেলা পর্যায়ে পাঠিয়েছি। সেখান থেকে চার জনের নাম কেন্দ্রে পাঠানো হবে। এরপর কেন্দ্র থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্বাক্ষরিত একজন প্রার্থীর নাম (দলীয়) প্রার্থী হিসাবে গন্য হবে। তবে সকল প্রার্থী একমত প্রকাশ করেছেন। দল যাকে মনোনয়ন দিবে ,সকলেই সেটি মেনে নিবেন।
তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সরকার দলীয় একাধিক নেতার মুখ থেকে পাওয়া সূত্রে জানা গেছে, এই ৮ জনের মধ্যে বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী, আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শহীদুজ্জামান শাহীদ, পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন এবং আড়ানী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রিবন আহাম্মেদ বাপ্পী’র নাম কেন্দ্রে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এর মধ্যে প্রচারনায় এগিয়ে রয়েছেন তরুন ছাত্রলীগ নেতা বাপ্পী এবং বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী।
অপর দিকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল(বিএনপি’র) মধ্যে দলীয় কোন্দল থাকায় প্রার্থীদের নাম চুড়ান্ত করার বিষয়ে তাঁরা এখন পর্যন্ত কোন বৈঠক কিংবা সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেননি। তবে প্রচারনায় নেমেছেন ৪ জন। এরা হলেন, সাবেক আড়ানী পৌর মেয়র শিক্ষক নজরুল ইসলাম, সাবেক আড়ানী ইউপি চেয়ারম্যান ও গত নির্বাচনে’র দলীয় প্রার্থী তোজাম্মেল হক , বর্তমান আড়ানী পৌর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক তুফান আলী ও আড়ানী পৌর যুবদলের সভাপতি মজিবুর রহমান জুয়েল ।
তবে দলীয় নেতা-কর্মীরা মনে করছেন, দলের মধ্যে মতো-বিরোধ যাই থাক, শেষ পর্যন্ত এই চার প্রার্থীর মধ্যে সাবেক মেয়র নজরুল ইসলাম এবং তোজাম্মেল হকের মধ্যে যে কোন একজন দলীয় প্রার্থী মনোনীত হবেন।
নির্বাচন প্রসঙ্গে বর্তমান মেয়র ও আওয়ামীলীগ নেতা মুক্তার আলী তাঁর উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখেছেন, প্রিয় পৌরবাসী আপনারা বিবেচনা করে দেখেন আড়ানীকে দুর্নীতি ও চাঁদা মুক্ত করতে পেরেছি-কি না ? সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ী ভাইদের সুস্থ ও সুন্দর ভাবে ব্যবসা করে জীবন জীবিকার পথ প্রসস্ত করেছি-কি না ? তাই দল-মত-নির্বিশেষে আপনারা আর একটিবার আমাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন। তাঁর বিশ্বাস, দল তাকে মনোনয়ন দিলে তিনি আবারও বিজয়ী হবেন।
অন্যদিকে পৌর ছাত্রলীগ দাবি করেছেন, এখানে জনসমর্থনে এগিয়ে রয়েছেন তরুণ ছাত্রলীগ নেতা রিবন আহমেদ বাপ্পী। তিনি আড়ানী পৌরসভা ছাত্রলীগের সভাপতি। বিনয়ী এই তরুণ যুবক প্রয়াত পিতা সমাজ রেসবক বাবুল হোসেনের ঐতিহ্য ধরে রাখতে ছুটছেন মানুষের দ্বারে দ্বারে, করছেন গণসংযোগ, সাধারণ মানুষের পাশে গিয়ে শুনছেন তাদের সমস্যার কথা এবং সাধ্যমত চেষ্টা করছেন সমস্যাগুলো সমাধানের। অতি অল্প সময়েই পৌরবাসীর কাছে তিনি হয়ে উঠেছে জনপ্রিয়।
এদিকে আড়ানী পৌর বিএনপির আহবায়ক শিক্ষক জাহিদ হোসেন সহ উপজেলা বিএনপির অনেকেই জানান, বিগত সময়ে বিএনপি থেকে এখানে নজরুল ইসলাম মেয়রের দায়িত্ব পালন করে এলাকায় অনেক উন্নয়ন করেছেন। যদি নিরপেক্ষ ভাবে ভোট অনুষ্ঠিত হয় এবং দল তাঁকে মনোনয়ন দেন, তাহলে এখানে হাড্ডা-হাড্ডি লড়ায় হবে। আর যদি প্রার্থী বাছাইয়ে ভুল করেন, তাহলে আবারও আওয়ামী লীগের জয় সু-নিশ্চিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *