মাস্কের ফেরিওয়ালা মনিমুল!

বাগমারা প্রতিনিধিঃ বাগমারা: করোনা সংকটের শুরু থেকেই বাগমারার বিভিন্ন এলাকায় মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান ও লিফলেট বিতরণ করে চলেছেন মনিমুল হক(৫২)। সম্পূর্ন নিজেস্ব উদ্যোগে নিজের গাড়ি ব্যবহার করে বাগমারার প্রত্যন্ত এলাকায় এসব সামগ্রি বিতরণ করে চলেছেন নিরলসভাবে। কখনও কখনও গাড়িতে হ্যান্ড মাইক লাগিয়ে করোনার সর্তকর্তা ও স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে নানান সচেতনতা মূলক ঘোষনা প্রচার করে বেড়ান করোনা যোদ্ধা মনিমুল হক। এ পর্যন্ত তিনি বাগমারার বিভিন্ন এলাকায় প্রায় ১০ হাজার মাস্ক বিতরন করেছেন বিনামূল্যে।
করোনার এমন সতর্কতা বানী প্রচার করায় এবং করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরন করায় সবাই তাকে করোনা যোদ্ধা বা মাস্কের ফেরিওয়ালা বলে চিনলেও তার রয়েছে বিশাল পারিবারিক পরিচয়। মনিমুল হক হলেও বাগমারার সংসদ সদস্য ইঞ্জি এনামুল হকের আপন ছোট ভাই। তবে এই পরিচয় দিতে তিনি স্বাচ্ছন্দ বোধ না করে দিনরাত মানুষের সেবাই ছুটে বেড়ান বাগমারা গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সবার অতি প্রিয় কাছের মানুষ মনিমুল ভাই। অসহায় দুখি মানুষের সেবা করে বেড়ান দিনরাত। এমন কাজে তার ক্লান্তি আসে না। তিনি বর্ষা কালে গাছের চারা, শীত কালে শীতার্থদের মাঝে শীত বস্ত্র, কোমলমতি শিশুদের মাঝে খেলার সামগ্রী বই পুস্তক কিনে দেন এবং অসুস্থ রোগাক্রান্তদের চিকিৎসায় সাধ্যতম সাহায্য সহযোগিতা প্রদান করেন। সালেহা ইমারত ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ জিয়াউর রহমান মোল্লা জানান, মনিমুল হক স্থানীয় সাংসদের ছোট ভাই হলেও তিনি কখনো এই পরিচয় জাহির করেন না। নিজের যোগ্যতা সীমিত সামর্থ নিয়ে বাগমারার দুস্ত অসহায় মানুষের সেবা করে েেবড়ানোই তার নেশা। একই কলেজের শিক্ষক আমজাদ হোসন জানান, কেউ কোন দিনে মনিমুল হকের কাছে হাত পেতে ফেরত যায়নি। তিনি অসহায় অনেককে গরু ছাগল কিনে দিয়েছেন । যারা এসব গরু ছাগল দিয়ে তাদের দূরবস্থা লাঘব করতে পেরেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *