বাঘায় আগুন ৪ বসত ঘরপুড়ে ছাই

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাঘা উপজেলার ফতেবপুর বাউসায় ভয়াবহ অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৪টি ছাগলসহ চারটি বসতঘর পুড়ে অন্তত ৫ লাক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্ত্রদের। তবে ছাগল ছাড়া আগুনে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। বুধবার (২৫ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৭ টার দিকে বাঘা উপজেলার বাউসা ইউপির ফতেবপুর বাউসা রাসেল হোসেন ও বাদলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, রাত সাড়ে ৭ টার দিকে বাদল আহমদের ঘর থেকে প্রথমে আগুনের সৃত্রপাত ঘটে। আগুনে রাসেল ও বাদল বাড়ির লোকজনের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে আসে কিছু বুঝে উঠার আগেই মুহুর্তের মধ্যে রাসেল ও বাদল আহমদের চারটি ঘর আগুনে ছড়িয়ে পড়ে ছাই হয়ে যায়।
এসময় ঘরগুলোতে থাকা লোকজন দ্রুত বের হয়ে আসায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে ঘরে থাকা চারটি ছাগল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করলেও র্ব্যথ হয়। খবর পেয়ে বাঘা ফায়ার স্টেশনের একটি ইউনিট ঘটনাস্থালে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এর আগেই আগুনে চারটি ঘরে থাকা মূল্যবান মালামাল পুড়ে আন্তত ৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
বাঘা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার রৌশন আহম্মেদ শাওন বলেন, ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে প্রায় একঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকে এ আগুনের সূত্রপাত ঘটেছে। তবে আগুনে ক্ষতিগ্রস্তরা ৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে দাবি করলেও ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে নিরূপন করা সম্ভব হয়নি বলেও জানান ফায়ার সার্ভিসের এ কর্মকর্তা।
বাউসা ইউপির চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিক ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার সকালে ওই সকল পরিবার কে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন এবং তিনি বলেন ওই সকল পরিবার লোকজন দিনমজুরি সরকারী সহযোগীতা না পেলে তাদের পক্ষে বসত ঘর বাড়ি করা সম্ভব হবেনা।
খবর পেয়ে ওই রাতেই বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহিন রেজা ঘটনার স্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের খোঁজ খবর নেন ও তাদের মাঝে শুকনা খাবার এবং শীত বস্ত্র বিতারণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *