নওগাঁয় স্বাস্থ্য বিভাগে চাকুরী দেয়ার নামে ৩ ব্যক্তির নিকট থেকে ৯ লক্ষ টাকা গ্রহণ: টাকা ফেরত চাইলে হুমকী

নওগাঁ প্রতিনিধি :- নওগাঁয় একজন সরকারী কর্মচারী চাকুরী দেয়ার নাম করে ৩ জন চাকুরী প্রত্যাশীর নিকট থেকে ৯ লক্ষ টাকা গ্রহণ করে আত্মসাৎ করেছে। এখন এই চাকুরী প্রত্যাশীদের চাকুরী কিংবা টাকা ফেরত কনোটিই দেয়া হচ্ছেনা। জমিজমা এবং বিভিন্ন সম্পদ বিক্রি করে টাকা দিয়ে এখন তারা নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। আর চাকুরী নয় টাকা ফেরত নেয়ার জন্য দিনের পর দিন তার নিকট ধন্যা দিচ্ছে। টাকাতো ফেরত দিচ্ছেনা বরং তাদের সাথে র্দুব্যবহরা করা হচ্ছে এমন কি টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করছে। এ ব্যাপারে নওগাঁ সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ পত্র অনুযায়ী জানা গেছে স্বাস্থ্য বিভাগের আওতায় বাচাড়ীগ্রাম কমিউনিটি ক্লিনিক-এর কর্মচারী বক্তারপুর গ্রামের জনৈক মোঃ গোলাম মোস্তফা’র পুত্র মোঃ সাদ্দাম ইবনে মোস্তফা একটি বেসরকারী কোম্পানীতে চাকুরী দেয়া নাম করে ৩ ব্যক্তির নিকট থেকে ৯ লক্ষ টাকা গ্রহণ করে। টাকা প্রদানকারী চাকুরী প্রত্যাশীরা হলেন মহাদেবপুর উপজেলার দক্ষিন লক্ষিপুর গ্রামের মৃত আলা বক্স মন্ডলের পুত্র মোঃ আয়েন উদ্দিন মন্ডল, ধনজইল গ্রামের মোঃ সাগর হোসেনের স্ত্রী মোছাঃ সোহেলী আকতার এবং গনেশপুর গ্রামের মোঃ বছির উদ্দিনের পুত্র মোঃ হাবিবুর রহমান। ৩শ টাকার নন-জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করে উক্ত সাদ্দাম ইবনে মোস্তফা টাকা গ্রহণ করে চাকুরী দিতে ব্যর্থ হলে সমুদয় টাকা ফেরত দিবে বলে অঙ্গিকার করেছে।
পরবর্তীতে বাধন ইন্টারন্যাশনাল সার্ভিস লিমিটেড নামের একটি বেসরকারী সংস্থার ভুয়া নিয়োগপত্র প্রদান করে। এই প্রতিষ্ঠানের প্রধান দপ্তর রুম নং ২১৫, প্রথম তলা, জহুরী মহল্লা, মসজিদ মার্কেট মোহাম্মদপুর, ঢাকা। কিন্তু পরবর্তীতে তারা কেউ এই নিয়োগপত্র দিয়ে চাকুরীতে নিয়োজিত হতে পারেন নি। কারন নিয়োগপত্রগুলো ভুয়া ছিল।
চাকুরী না পেয়ে তারা টাাকা ফেরত নেয়ার জন্য দিনের পর দিন ঘুরছেন। কিন্তু টাকা ফেরত না দিয়ে তাদের হয়রানী করছে, টাকা নেয়ার কথা অস্বীকরা করছে এমন কি নানাভাবে হুমকীও প্রদান করছে। নিভৃত পল্লী অঞ্চলের এসব সহজ সরল মানুষ অতি কষ্টে দিনযাপন করছেন। বাধ্য হয়ে তাদের পক্ষে মোঃ আয়েন উদ্দিন মন্ডল বাদী হয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *