আধুনিক দুর্গাপুর পৌরসভা গড়তে চান আলমগীর

মিজান মাহী, দুর্গাপুর: আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট করতে চান কৃষিবিদ আলমগীর হোসেন। সুযোগ পেলে দুর্গাপুর পৌরসভাকে একটি নাগরিক সুবিধা সম্পন্ন আধুনিক, আদর্শ ও বাসযোগ্য পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে চান তিনি। এজন্য আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক সফল ছাত্রলীগ নেতা কৃষিবিদ আলমগীর হোসেন। পৌরবাসীর দুঃখ, দুর্দশা দূর করে একটি সুখী, সমৃদ্ধ পৌরসভা উপহার চ্যালেঞ্জ নিতে আগ্রহী তিনি। বিশেষ এক সাক্ষাৎকার পাঠকদের মাঝে তুলে ধরা হলো।
করোনাকালেও ব্যক্তিগত উদ্যোগে সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে থেকে বিভিন্ন সাহায্য, সহযোগিতা ও সেবামূলক কাজ করে যাচ্ছি। আগামীতেও করে যাবো এই সদিচ্ছা সবসময় মনে-প্রাণে লালন করি। তবে, ব্যাপক ভাবে কিছু করতে গেলে একটা জায়গা প্রয়োজন, মানুষের সেবা করার সেই তীব্র ইচ্ছা থেকেই মেয়র হতে চাই।
আল্লাহ্ যদি আমাকে ভালবাসেন, যে জনপ্রিয়তা আমার আছে, আমি মেয়র পদে নির্বাচিত হবো। সেই প্রত্যাশা আমি রাখি এবং বিশ্বাস করি।‘ আসন্ন পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচিত হলে দুর্গাপুর পৌরবাসীর উন্নয়নে কি কি কাজ করার পরিকল্পনা আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রত্যেক এলাকায় রাস্তা ঘাটের আধুনিকায়ন করা হবে। অন্ধকার পৌরসভাকে আলোকিত করা হবে। সুপেয় পানি ঘরে ঘরে পৌছে দিবো। জলবদ্ধতা দূরীকরণে আমার সুদূর প্রসারি পরিকল্পনা আছে। ‘ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে আমার সম্পৃক্ততা রয়েছে
কৃষিবিদ আলমগীর হোসেন দুর্গাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের একজন সফল সভাপতি ছিলেন। রাজনীতির সাথে তার সম্পৃক্ততা ২০১২ সাল থেকে দুর্গাপুর উপজেলা ছাত্র রাজনীতির মাধ্যমে। ২০১২ সাল থেকে ২০১৮ উপজেলা ছাত্রলীগের দীর্ঘ সময় সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। এছাড়া বর্তমানে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ পদে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন কৃষিবিদি আলমগীর হোসেন।
মেয়র পদে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশী আলমগীর হোসেন বলেন, ‘দুর্গাপুর পৌরসভাকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন আমার। ২০১২সাল থেকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ দুর্গাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলাম। এর আগে ও পরে দলের জন্য বিভিন্ন আন্দোলন, সংগ্রাম সক্রিয়ভাবে করেছি, নেতৃত্ব দিয়েছি। দলের গতি আরও বেগবান করেছি। আমার জনপ্রিয়তায় ছিল, আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেলে আমার বিশ্বাস দুর্গাপুর পৌরবাসী আমাকে মেয়র নির্বাচিত করবেন। আমার স্বপ্ন দুর্গাপুর পৌরসভাকে একটি আধুনিক ও আদর্শ পৌরসভা হিসেবে গড়ে তোলার। পৌরবাসীর সকল শ্রেনী -পেশার মানুষের নাগরিক অধিকার পূরণ করে একটি বাসযোগ্য মডেল পৌরসভা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করাই আমার স্বপ্ন।
দুর্গাপুর পৌরবাসী আপনাকে কেন মেয়র পদে নির্বাচিত করবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন,‘ আমি অত্যান্ত পরিচিত একজন মানুষ। আমার আচার-আচরণে, কথা-বার্তায়, কাজে-কর্মে পৌরবাসীরা আমাকে চিনেন-জানেন এবং বিশ্বাস করেন। আমার সততা, সাহস ও বিভিন্ন সেবামুলক ও উন্নয়ন কাজের জন্যই দুর্গাপুরের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ আমাকে বিশ্বাস করেন। আর এই গ্রহণযোগ্যতা থেকেই দুর্গাপুর পৌরসভার মানুষ আমাকে ভোট দিবেন এটা আমার বিশ্বাস।
তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের আগে থেকেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর উপরে আমার শ্রদ্ধা ও ভালবাসা এবং তখন থেকেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতি দুর্বলতা জানিয়ে তিনি বলেন, আমার কাজের জন্য আমি শতভাগ প্রত্যাশী আমার প্রাণপ্রিয় সংগঠন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *