১৬ বছর মামলা চলার পর রায়ে খালাস পেলেন ১৩ আসামি

বিশেষ প্রতিনিধি  :  রাজশাহী বাগমারা উপজেলার দিপঙ্কর সাহা হত্যা মামলার রায় ১৬ বছর পর ঘোষণা করা হয়েছে। এ মামলায় ১৩ জন আসামি বেকসুর খালাস পেয়েছেন। মামলায় মোট ১৮ জন আসামি ছিলেন।

অন্য পাঁচজন আসামি আগেই মারা গেছেন। এদের মধ্যে জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) নেতা সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাইয়ের ফাঁসি কার্যকর হয়েছিল অন্য মামলায়।

বুধবার দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালত-১ এর বিচারক মোসা. ইসমত আরা এ রায় ঘোষণা করেন। আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী শফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মোট ১৮ আসামির মধ্যে একজনের ফাঁসি হয়েছিল। আর চারজনের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছিল। মৃত এই পাঁচজন এমনিতেই অব্যাহতি পেয়েছেন। আর জীবিত ১৩ জনকে আদালত বেকসুর খালাস দিয়েছেন। এই ১৩ জনের মধ্যে ১২ জন আদালতে হাজির ছিলেন। তারা মামলাটিতে জামিনেই ছিলেন। আর একজন দীর্ঘদিন ধরেই পলাতক ছিলেন। তিনিও খালাস পেয়েছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ২০০৪ সালে ২৯ এপ্রিল তৎকালীন জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) নেতা সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাইয়ের নেতৃত্বে তাদের হামিরকুৎসা ক্যাম্পে ধরে নিয়ে গিয়ে দিপঙ্কর সাহাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় দিপঙ্করের বাবা দিজেন্দ্রনাথ সাহা বাদী হয়ে বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জানান, দীর্ঘদিন পরিচালিত এ মামলার সাক্ষিরা আসামি শনাক্ত করতে না পারার কারণে তাদের খালাস দিয়েছেন আদালত। এ মামলায় ৩৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *