হাঁস পালনে স্বাবলম্বী দিনমজুর রুবেল

এম এম মামুন : হাঁস পালন করে স্বাবলম্বী হয়েছেন রাজশাহীর মোহনপুরের দিনমজুর রুবেল ইসলাম। তিনি উপজেলার বাকশিমইল গ্রামের মইফুল ইসলামের ছেলে। রুবেল ইসলাম অন্যের দিনমজুর কাজ করার পাশা-পাশি বর্তমানে হাঁস পালন করে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হয়েছেন। ফিরে এসেছে সংসারের স্বচ্ছলতা।

হাঁস পালনকারী রুবেল ইসলাম বলেন, বাবা ঠিকমত ভরন পোষণ না দেওয়ায় মাকে নিয়ে আলাদা হয়ে যান তিনি। অন্যের দিনমজুর কাজের পাশা-পাশি প্রথমে কয়েক জোড়া হাঁস পালন শুরু করেন। অভাবের সংসারে হাঁস পালনে অনুপ্রেরণা ও সহযোগিতা করেন তার মা। প্রথমে বগুড়ার সান্তাহার এলাকা থেকে উন্নতজাতের ৮ থেকে ১০ দিন বয়সী ৩ শতাধিক হাঁসের ছানা কিনে শুরু করেন হাঁস পালন। এরপর থেকে তাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি।
খামারি রুবেল বলেন, বর্তমানে আমার খামারে প্রতিদিন ক্যাম্বেল জাতের হাঁস প্রায় ২০০ থেকে ২৫০টি ডিম দেয়। হাঁসের ডিম যখন আকারে ছোট হয়ে আসে বা ডিম দেয়া কমে গেলে সেই মা হাঁসগুলো বাজারে পাইকারি বিক্রয় করে দেন। এতে করে গড় প্রতিমাসে ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা লাভ হয়। বর্তমানে হাঁস পালন করে তিনি পরিবার পরিজন নিয়ে অনেক সুখে অাছেন।
তিনি আরো বলেন, অভাবের কারনে লেখাপড়া করতে পারেননি। ছোট থেকে মানুষের কাজ করে জীবিকা নির্ভর করতাম। পরে দেখলাম প্রতিদিন কাজ হয় না। তাই অন্যকিছু করার ভাবনা থেকে হাঁস পালনের চিন্তা মাথায় আসে। আর বসে না থেকে কম খরচে হাঁসের খামার শুরু করেন।
মোহনপুর উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, রুবেলের মত একজন বেকার যুবক হাঁস-মুরগী এবং উন্নতজাতের ছাগল পালন করে নিজে স্বাবলম্বী হয়েছেন। রুবেল ইসলামের মত কেউ যদি এমন উদ্যেোগ নেয় আমাদের দপ্তরের পক্ষ হতে যাবতীয় পরামর্শ প্রদান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *