রাবিতে নিয়োগ প্রাপ্তরা যোগদানের দাবিতে রাতভর  ভিসির বাড়ির সামনে পাহারা, সিন্ডিকেট সভা স্থগিত

 রাজশাহী প্রতিনিধি:-রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগপ্রাপ্ত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা  যোগদানের দাবিতে বিছানা নিয়ে ভিসির বাড়ির সামনে রাতভর পাহারা দিয়েছে ন ।২২ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে ২৩ জুন সকাল পর্যন্ত প্যারিস রোড সংলগ্ন উপাচার্যের বাস ভবনের সামনে অবস্থান করেন তারা। এদিন সন্ধ্যা ৭ টায় উপাচার্যের বাসভবনে সিন্ডিকেট সভা‌ হওয়ার কথা থাকলেও আন্দোলনকারীদের বাঁধার মুখে সিন্ডিকেট সভা স্থগিত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এর পরেও রাত জেগে পাহারা দেন তারা।
এর আগে গত শনিবার থেকে কর্মস্থলে পদায়নের দাবিতে প্রশাসন ভবন ও উপচার্যের বাসভবনে তালা ঝুলিয়ে আন্দোলন করে আসছিলেন। এর ফলে শনিবার ফাইনান্স কমিটির সভা স্থগিত হয়ে যায়। গত রোববার রাতে স্থানীয় আওয়ামী লীগের হস্তক্ষেপে তালা খুলে দেন। পরে সোমবার দুপুরে স্থানীয় সাংসদ, মহানগর আওয়ামী লীগ এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক করেন আন্দোলনকারীরা। প্রায় তিন ঘণ্টা আলোচনা শেষে চাকরিপ্রাপ্তরা আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দেন। এসময় প্রশাসনিক কার্যক্রমে বাধা দিবেন না বলেও তারা জানান। তবে এর ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে সিন্ডিকেট ঠেকাতে নিয়োগপ্রাপ্তদের একাংশ সন্ধ্যা  ৬ টার দিকের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন।
সাড়ে ৭টার দিকে সরেজমিনে দেখা যায়, উপাচার্যের বাস ভবনের সামনে ৩০-৩৫ জন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী অবস্থান নিয়েছেন। পাশে অবস্থান করছেন মতিহার থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)সহ বেশকিছু পুলিশ সদস্য ও গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যরা ।
এসময় উপাচার্যের বাসভবনে সামনে অবস্থান নেওয়া নিয়োগ পাওয়া ছাত্রলীগ নেতারা জানান্, শিক্ষামন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে তিন দিনের মধ্যে তাদের বিষয় সমাধান করবে এমন আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত করেছিলেন। তাদের আশঙ্কা, আজকে সিন্ডিকেট সভায় নিয়োগ বাতিলের সুপারিশ করবে। এ কারণে তারা সিন্ডিকেট সভা করতে দিবেন না। নিয়োগপ্রাপ্ত ছাত্রলীগ নেতা আতিকুর রহমান সুমন বলেন, আমাদের দাবি সুস্পষ্ট। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ যে কার্যক্রম তা চলবে । তবে আমাদের বিষয়টি সমাধান না হওয়া পর্যন্ত এফসি , সিন্ডিকেটসহ গুরুত্বপূর্ণ মিটিং হবে না।
আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কয়েকদফা কথা বলেন ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক তারেক নূর ও প্রক্টর লিয়াকত আলী। তবে আন্দোলনকারীরা তাদের দাবিতে অনড় থাকে।
পরে রাত সাড়ে আটটায় রুটিন উপাচার্য তার বাসভবনে সাংবাদিকদের জানান, নিয়োগপ্রাপ্তদের বাধার মুখে তিনি সিন্ডিকেট সভা স্থগিত করেছেন। অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, নিয়োগপ্রাপ্ত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা গতকাল স্থানীয় আওয়ামী লীগ সাংসদ ও উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত বৈঠকে আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা দিয়েছিলেন। তারা সিন্ডিকেট মিটিং এ কোন বাঁধা দিবেন এমন আশ্বাস দেন। আজ মঙ্গলবার সাড়ে ৭টায় উপচার্যের বাসভবনে সিন্ডিকেট মিটিং ছিল। কিন্তু তারা ৬টা দিকে বাসভবনে সামনে অবস্থান নেন। তাদের বাঁধার মুখে আমি সিন্ডিকেট সভা স্থগিত করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *