রাজশাহীতে যথাযথ মর্যাদায় বিজয় দিবস পালিত

রাজশাহী প্রতিনিধি :- সারা দেশের ন্যায় রাজশাহীতে যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়েছে মহান বিজয় দিবস। এ উপলক্ষে দিনটির প্রথম প্রহর থেকেই রাজশাহীর শহীদ মিনারগুলোতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানায় আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা। পরে সর্বসাধারণ বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এছাড়া সকালে রাজশাহীর জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বিজয় দিবসের বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়।
এসময় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে উন্নত বাংলাদেশ নির্মানে তরুণ প্রজন্মের প্রতি আহ্বান জানান শ্রদ্ধা জানাতে আসা মানুষেরা।
** ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনারের শহীদদের প্রতি সম্মান;-
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও শহীদ কামারুজ্জামানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পন করেছেন রাজশাহীস্থ ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার শ্রী মনোজ কুমার।
১৬ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টায় রাজশাহী নগরীর সিএ্যান্ডবি মোড়ে নির্মিত দেশের মধ্যে সর্ববৃহৎ বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন তিনি। এরপর তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান হেনার কবরে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন। এছাড়াও তিনি বিজয় দিবস উপলক্ষে অফিসে কর্মরত বাংলাদেশী স্টাফদের ও কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করেন
** রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের  মহান বিজয় দিবস পালিত;-
রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে ১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যের সাথে উদযাপন করা হয়েছে।
মহান বিজয় দিবসের সকালে সূর্যোদয় অন্তে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় এবং দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।
সকাল ১০টায় রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বিজয় র‍্যালী নিয়ে রাজশাহী কলেজ রাজশাহী কলেজের শহীদ মিনারের পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। এরপর জেলা আওয়ামী লীগের অঙ্গ সহযোগী সংগঠন সমূহের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করা হয়।
পরে নগরীর সিএন্ডবি মোড়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আবক্ষ প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেন নেতাকর্মীরা।
মহান বিজয় দিবসের গৃহীত কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোঃ আমানুল হাসান দুদু এবং পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ দারা।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন; জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপকমিটির সদস্য ডাঃ আনিকা ফারিহা জামান অর্ণাসহ জেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সভাপতি – সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ
** রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন মহান বিজয় দিবস পালিত;-
রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে যথাযথ মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার সকাল ১১টায় নগর ভবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের পক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাসিকের কাউন্সিলরবৃন্দ।
এ সময় কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ ও কর্মচারী ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথকভাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা, মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন এবং তাঁদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
** রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত;-
১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস। মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের স্মরণে এ দিবসটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসন বিভিন্ন আয়োজন ও অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে দিবসটি উদযাপন করেন। ভোরে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে প্রশাসন ভবনসহ অন্যান্য ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ৭:১৫ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার শহীদ মিনারে ও সকাল ৭:৩০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে এবং সকাল ৭:৪৫ মিনিটে বধ্যভূমির স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ, সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন প্রভৃতি পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।
সকাল ৮:৪৫ মিনিট থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল খেলাধুলা ও সকাল ৯:৩০ মিনিট থেকে শেখ রাসেল মডেল স্কুল মাঠে স্কুলের আনন্দ মেলা অনুষ্ঠিত হয়। উপাচার্য এসব আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার প্রদান করেন। উপ-উপাচার্যবৃন্দসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণও এসব অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এরপর সকাল ১০টায় সাবাস বাংলাদেশ চত্বরে বিএনসিসি, রোভার স্কাউট, রেঞ্জারের প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য এই প্যারেড পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন। এসময় উপ-উপাচার্যবৃন্দ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। সকাল ১০:৪৫ মিনিটে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয় স্মৃতিচারণ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননা প্রদান এবং আলোচনা। প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য বীর মুক্তিযোদ্ধাদের শুভেচ্ছা জানান ও সম্মাননা স্মারক ক্রেস্ট উপহার দেন। আলোচনায় আলোচক ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক। উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. সুলতান-উল-ইসলাম ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. অবায়দুর রহমান প্রামানিক।
অনুষ্ঠানে আলোচক মফিদুল হক আলোচনার শুরুতেই সকল শহীদ শিক্ষকদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা প্রতিষ্ঠার চেতনা, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রতিষ্ঠাকে বিশেষভাবে অনুপ্রাণিত করে বলে উল্লেখ করেন।
এদিকে দিবসটি উপলক্ষে বাদ জুম্মা নগরীর সকল মসজিদে দোয়া ও মোনাজাত এবং অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল চারটায় মৃক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন বনাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। ম্যাচ শেষে চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ ট্রফি এবং অংশগ্রহণকারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
এছাড়া রাজশাহী মহানগর আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,রেলওয়ে শ্রমিক লীগেসহ জেলার উপেলা গুলোতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত হয়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *