খবররাজনীতিরাজশাহীসারাদেশ

বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র, নৈরাজ্যর বিরুদ্ধে শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা

বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র, নৈরাজ্য, অপরাজনীতি ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের উদ্যোগে আজ মঙ্গলবার বিকাল ৪.৩০টায় ‘ শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা ’ কর্মসূচী সাহেব বাজার বড় মসজিদ চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল এঁর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহ্সানুল হক পিন্টু। সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম। আরো বক্তব্য রাখেন বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান রতন, মতিহার থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন, নগর শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ওয়ালী খান, নগর যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাচ্চু, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আব্দুল মোমিন, নগর যুব মহিলা লীগ সভাপতি এ্যাড. ইসমত আরা, নগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সিরাজুম মুবিন সবুজ, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু।

কর্মসূচীতে বক্তারা বলেন, বিএনপি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন দফার কথা বলে। কিন্তু তাদের কোন দফা বাস্তায়ন হয় না, অথচ তারা দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র, নৈরাজ্য ও অগণতান্ত্রিক আন্দোলনে লিপ্ত হয়। এতে তারা কোনদিনও সফল হবে না। তারা দেশ ও জাতির মঙ্গল চায় না। আজকে নাকি তারা পদযাত্রা করছে। এটা তো পদযাত্রা নয়, এই যেন শোক যাত্রা। এই কথাকথিত পদযাত্রা দিয়ে, কোন দফা দিয়ে আর যাই হোক শেখ হাসিনা’র সরকারের পতন ঘটানো কোনদিনই সম্ভব নয়। এর চেয়ে আরো বড় ঘটনা মেজর জিয়া ঘটিয়েছিলো, এরশাদ ঘটিয়েছিলো, খালেদা জিয়াও ঘটিয়েছিলো। কিন্তু আওয়ামী লীগ শেষ হয়ে যায় নি, আওয়ামী লীগ এগিয়ে গেছে। বিএনপি যদি মনে করে দেশবিরোধী চক্রান্ত ও অগণতান্ত্রিক আন্দোলন করে জনগণ ধানের শীষে ভোট দিবে, তবে তারা মূর্খের স্বর্গে বাস করছে। উন্নয়ন করে আওয়ামী লীগ, আর জনগণ কি এতই বোকা যে ভোট দিবে বিএনপিকে! দেশের জনগণ নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে জয়যুক্ত করে আবারো জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় নিয়ে আসবে ইনশাল্লাহ। আমরা লক্ষ্য করলাম ছাত্রদল ও ছাত্রশিবিরের সন্ত্রাসীরা আমাদের জাতীয় পতাকাকে অবমাননা করেছে, প্রকৃত দেশপ্রমিক আমরা এহেন ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

বক্তারা আরো বলেন, ঐ লন্ডনে বসে থেকে তারেক রহমান খুব লাফাচ্ছে। তার ইন্ধনে বিএনপি’র নেতাকর্মীরা ষড়যন্ত্র ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড শুরু করেছে। কিন্তু এসবে কোন লাভ নেই। রাজনীতি করার যখন এতই ইচ্ছা তখন দেশে আসুন। দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য আদালত প্রক্রিয়া করছে, বাংলার মাটিতে কিভাবে বিচার করতে হয় বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা খুব ভালোমতোই জানেন।

বক্তারা বলেন, বিএনপি’র ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থাকতে হবে, তারা যেন দেশে কোন রকম সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না করতে পারে। তাদের সকল ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত নসাৎ করে দিয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি নাঈমুল হুদা রানা, উপদেষ্টাম-লীর সদস্য আলাউদ্দিন শেখ ভুলু, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শ্যাম দত্ত, শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ওমর শরীফ রাজিব, সদস্য হাবিবুর রহমান বাবু, শাহাব উদ্দিন, এ্যাড. শামসুন্নাহার মুক্তি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ আব্দুল মান্নান, হাফিজুর রহমান বাবু, আব্দুস সালাম, ইসমাইল হোসেন, জয়নাল আবেদীন চাঁদ, খায়রুল বাশার শাহীন, এ্যাড. রাশেদ-উন-নবী আহসান, থানা আওয়ামী লীগের মধ্যে রাজপাড়া থানার শেখ আনসারুল হক খিচ্চু, বোয়ালিয়া (পূর্ব) থানার সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, নগর কৃষক লীগ সভাপতি রহমউল্লাহ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক সাকির হোসেন বাবু, নগর যুব মহিলা লীগ সাধারণ সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন নিলু, নগর ছাত্রলীগ সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *