বাঘায় কলেজ ছাত্র হত্যার প্রধান আসামী ঢাকায় গ্রেফতার

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাঘায় জাকির হোসেন (২৩) নামে এক কলেজ ছাত্রকে ছুরিকাঘাত করে হত্যার এক নম্বার আসামী মোহন হোসেনকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) গভীর রাতে বাঘা থানার পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা উত্তরা থানার পুলিশের সহায়তায় দিয়াবাড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। এ সময় অভিযুক্ত মহননের নিকট থেকে হত্যার আলামত হিসাবে ব্যবহৃত ছুরিটিও উদ্ধার করে পুলিশ।
অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে,পাওনা টাকা লেনদেনের বিষয় নিয়ে নিহত জাকির ও মোহনের মধ্যে দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্ব চলছিল। এর জের ধরে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে জাকির হোসেনকে ডেকে নিয়ে গিয়ে উপজেলার হরিপুর তিন রাস্তার মোড়ে মিলনের দোকানের পাশে তাকে ছুরিকাঘাতে করে হত্যা করা হয়।
এ ঘটনায় মোহনকে এক নম্বর আসামী করে মোট ১১ জনের নাম উল্লেখ করে জাকিরের ভাবী রোজিনা বেগম বাদি হয়ে ঘটনার দিন রাতে বাঘা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নিহত জাকির আবদুলপুর সরকারি কলেজের রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র ছিলো।
উল্লেখ্য, গত রোববার (১১ জুলাই) রাত ৯টার দিকে পার্শ্ববর্তী বাগাতিপাড়া উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের চকমাহাপুর গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে মোহন ও তার ৮-৯ জন বন্ধু মিলে জাকির হোসেনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। নিহত জাকির বাউসা ইউনিয়নের খাগড়বাড়িয়া গ্রামের মহির উদ্দিন মাস্টারের ছেলে। এই হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ওই রাতেই নাসির উদ্দিন ও হাফিজুল ইসলামকে পুলিশ গ্রেফতার করে। এর দুইদিন পর মামলার প্রধান আসামী মহনকে হত্যার আলামত সহ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।
বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, জাকির হত্যার প্রধান আসামী মোহনকে ঢাকা উত্তরার দিয়াবাড়ি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ঘটনার দিন রাতে দু’জনকে গ্রেফতার হয়। এখন অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *