বাঘায় আহত যুবলীগ নেতাকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন জেলা যুবলীগ সভাপতি আবু সালেহ্

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাঘায় পৃথক ঘটনায় দুই যুবলীগ নেতা গুরুতর আহত হয়েছে। এদের মধ্যে বিএনপি সন্ত্রাসীর বাহিনীর হাতে নির্মম ভাবে আহত হয়েছে জেলা যুবলীগ নেতা তছিকুল ইসলাম অপর দিকে স্থানীয় সন্ত্রাসী বাহিনীর হাতে আহত হয়েছে ইউনিয়ন যুবলীগ যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আরিফুল ইসলাম। রবিবার উভয় নেতাকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন জেলা যুবলীগের সভাপতি আবু সালেহ।

সূত্রে জানা গেছে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর নারায়নপুর বাজারে তার ছোট ভাইয়ের দোকানের সামনে অবস্থান করছিল রাজশাহী জেলা যুবলীগের সহসভাপতি তছিকুল ইসলাম। এ সময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বিএনপি নেতা আমিরুল খাঁ’য়ের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের একটি সংঘবন্ধ দল অস্ত্র-সস্ত্র সজ্জিত হয়ে তছিকুলের উপর অতর্কিত হামলা চালায় এবং তার মাথায় আঘাত করে। এ সময় তছিকুল জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে পড়ে যায়। অতঃপর স্থানীয় লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন।
অপর দিকে বাজুবাঘা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আরিফুল ইসলাম ২৯ মার্চ আব্দুল গণি কলেজ থেকে ফেরার পথে জোতরাঘব কমিউনিটি ক্লিনিকের সামনে কতিপয় সন্ত্রাসী বাহিনী তার উপরে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে তিনি মারাত্বকভাবে আহত হন। আরিফুল ইসলাম জানান, চন্ডিপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্বাধীনতা দিবসের কনসার্ট চলাকালীন সময় বাঘা সদরের একটি সংঘবন্ধ দল বেপরোয়াভাবে নারীদের গ্যালারীতে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। এ সময় আমিসহ স্বেচ্ছাসেবক দল বাধা প্রদান করায় ঘটনার দুইদিন পর তারা আমার উপরে হামলা চালায়।
এদিকে পৃথক ঘটনায় আহত দুই যুবলীগ নেতাকে রবিবার বাঘা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখতে আসেন এবং তাদের খোজ খবর নেন রাজশাহী জেলা যুবলীগের সভাপতি আবু সালেহ।এ সময় তার সাথে ছিলেন জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোবারক হোসেন মিলন, অর্থ সম্পাদক হাফিজুর ইসলাম, সদস্য মুক্তার ও বাঘা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান নিপন, সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোকাদ্দেস আলীসহ জেলা ও উপজেলা যুবলীগের নেত্রীবৃন্দ।
জেলা যুবলীগের সভাপতি আবু সালেহ বলেন, বাঘায় দুই যুবলীগ নেতাকে মারপিট করে আহত করার আমি তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি এবং ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানাচ্ছি।

 

 

 

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *