বাগমারায় চলাচলের পথ বন্ধ করে প্রাচীর ও ঘর নির্মাণ

বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার দানগাছি গ্রামের এক প্রভাবশালী ও আউচপাড়া ইউনিয়নের বইকুরী গ্রামে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে প্রাচীর ও ঘর নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। চলাচলের পথ বন্ধ করে দেওয়ায় এলাকার লোকজনের চলাচলে ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। প্রতিকার চেয়ে এলাকার লোকজনের পক্ষে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এলাকাবাসীর পক্ষে দানগাছি গ্রামের জসিম উদ্দিনের লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, যুগ যুগ ধরে দানগাছি গ্রামের লোকজন অভ্যন্তরীন রাস্তা দিয়ে চলাচল করে আসছিলেন। ওই পথ দিয়ে মালামাল নিয়েও চলাচল করেন পাড়ার লোকজন। এতে গত ১০ মে প্রভাবশারী আতর আলী তার লোকজন নিয়ে রাতারাতি চলাচলের পথ বন্ধ করে সেখানে ইটের প্রাচীর নির্মাণ করেন। এসময় পাড়ার লোকজন স্থানীয় জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে বাধা প্রদান করলে তারা বিষয়টি সমাধানের আশ^াস দেন। তবে কোনো সমাধান না করে আতর আলী অতিরিক্ত শ্রমিক নিয়োগ করে দ্রুত প্রাচীর নির্মাণ শেষ করেন। লোকজনেরা বাধা প্রদান করলে তাদের বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও হুমকী দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন।
একই ভাবে উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়নের বইকুরী গ্রামের মৃত হায়দার আলীর মেয়ে লাভলীর বিরুদ্ধে ওই গ্রামের অর্ধশত লোক স্বাক্ষরিত এক অভিযোগে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে বাসাবাড়ি নির্মাণের অভিযোগ করেছেন। অভিযোগকারী আজাহার আলী, মুকুল হোসেন, মুনসুর রহমানসহ অনেকে জানান, পাড়ার লোক জনের চলাচলের রাস্তা দীর্ঘ দিনের। গত বৃহস্পতিবার দিন কতিপয় দুস্কৃতিকারীদের নিয়ে চলাচলের পথ বন্ধ করে ঘর নির্মাণ শুরু করে। এতে স্থানীয়রা এক জোট হয়ে বাড়ি নির্মাণ বন্ধ করে দিলেও ঘরটি অপসরণ করা হয়নি। পাড়ার লোকজনের চলাচলে সমস্যা হচ্ছে। বাইক বা ভ্যান নিয়ে চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এতে হেটে কোনো রকম পাড়ার লোকজনকে চলাচল করতেও কষ্ট হচ্ছে। বিকল্প পথ না থাকায় লোকজনকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তারা। এছাড়া রোববার ওই প্রভাবশালীরা একই রাস্তার উপরে একটি পানির পাম্প বসানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা বাধা দেয়। প্রতিপক্ষ রাস্তার জায়গাটি সংকীর্ণ করার কৌশল করছে। পাড়ার লোকজন ঘর নির্মাণ বন্ধ করে স্বাভাবিক চলাচলের ব্যবস্থা করে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। এই বিষয়ে লাভলীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলেন, লিখিত অভিযোগটি এখনো দেখেননি। তবে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *