বাগমারায় ঋণ গ্রহীতার অভিনব পাঁয়তারা

বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারার একটি বেসরকারি সংস্থা ‘সোনার বাংলা সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড’ এর ঋণের টাকা আতœসাৎ করতে অভিনব কায়দায় পাঁয়তারা শুরু করেছেন বানু বিবি নামে এক ঋণ গ্রহীতা। ওই সমিতির পাওনা মাত্র ১৯ হাজার টাকা আতœসাৎ করার হীন উদ্দেশ্যে ওই ঋণ গ্রহীতা সমিতির লোকজনের বিরুদ্ধে সাজানো মিথ্যা অভিযোগ দেয়াসহ বিভিন্ন কৌশলে নানা ফন্দি আঁটার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

সরজমিনে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারী বাগমারার ভবানীগঞ্জস্থ ‘সোনার বাংলা সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড’ নামে এক সমিতি থেকে বানু বিবি নামে এক ঋণ গ্রহীতা ৫০ হাজার টাকা ঋণ গ্রহণ হিসাবে করেন। এরপর ২০২০ সালের ৪ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত তিনি কয়েকটি কিস্তিতে মোট ৩৮ হাজার ৫০০ টাকা পরিশোধ করেন। এরপর অবশিষ্ট ১৯ হাজার টাকা পরিশোধের জন্য আর কোনো দিনও তিনি ওই সমিতির অফিসে আসেননি। এই টাকা আতœসাতের উদ্দেশ্যে ওই ঋণ গ্রহীতা ওই সমিতির লোকজনের বিরুদ্ধে সাজানো মিথ্যা অভিযোগ দেয়াসহ বিভিন্নভাবে কৌশলে নানা ফন্দি আঁটার চেষ্টা করেন। এর অংশ হিসাবে গত মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় ওই ঋণ গ্রহীতা বানু বিবিকে সমিতির লোকজন অফিসের একটি কক্ষে আটকে রেখে দিনভর শারীরিকভাবে নির্যাতন করে বলে থানায় একটি মিথ্যা অভিযোগ করা হয়। এছাড়া ভবানীগঞ্জ নিউ মার্কেটের তিন তলার সিঁড়ি থেকে তাকে ফেলে দেয়া হয় বলেও নাটক সাজানো হয়।

ওই সমিতির পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম বলেন-আমাদের অফিসের পাওনা মাত্র ১৯ হাজার টাকা আতœসাতের উদ্দেশ্যে ঋণ গ্রহীতা বানু বিবি আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দেয়াসহ বিভিন্ন কৌশলের আশ্রয় নিয়েছেন।

বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ বলেন- ওই অফিসের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে দেখা গেছে বানু বিবির কাছে থেকে ওই অফিস ১৯ হাজার টাকা পাওনা রয়েছে। ওই টাকাটা পরিশোধ করলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

 

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *