ঠোর লকডাউনের ৭ম দিন প্রশাসনের চেষ্টা অব্যহত থাকলেও বিধি নিষেধ মানছে না অনেকেই

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার সারাদেশে ব্যপক বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১ জুলাই থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত সরকার প্রথম দফায় সারাদেশে কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে। সকল অফিস-আদালত, যানবাহন, দোকানপাট বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়। আশঙ্কাজনক হারে করোনা সংক্রমন বাড়তে থাকায় সরকার চলমান লকডাউনকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত বর্ধিত করে। চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলায় লকডাউনের প্রথম দিকে সকলকে বিধিনিষেধ মেনে চলতে দেখা গেলেও বর্তমানে বিধিনিষেধ মেনে চলার প্রবনতা কম দেখা যাচ্ছে। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অনেক যানবাহন চলতে দেখা যাচ্ছে। কিছু কিছু দোকানপাট খোলা রেখে তাদের পণ্য বিক্রি করছে। রাস্তায় জনসমাগম বৃদ্ধি পেয়েছে, সামাজিক দূরত্ব এবং মুখে মাক্স পড়ার প্রবণতা কম। যে হারে করোনাভাইরাস দ্রুত গতিতে বেড়ে যাচ্ছে তাতে করে আশঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছে যে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও সরকারের সকল বিধিনিষেধ ঠিকমত না মানলে ভয়াবহ পরিস্থিতির সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করেন বিশিষ্টজনেরা।
এ বিষয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিলিপ কুমার দাস জানান, লকডাউনের সকল বিধিনিষেধ মেনে চলতে পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বাত্বক চেষ্টা চালানো হচ্ছে। জনগনকে সচেতন করতে তারা সবসময় চেষ্টা করে যাচ্ছেন।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার নজির জানান, আসন্ন কোরবানির ঈদ ও এ অঞ্চলের প্রধান অর্থকারী ফল আম ব্যবসাকে মাথায় রেখে চলমান লকডাউন সফল করতে উপজেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ সহ আনসারের সমন্বয়ে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে এবং ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা অব্যহত রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *