আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তারকে অস্থায়ী ভাবে বহিস্কার

বাঘা(রাজশাহী)প্রতিনিধি : দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হওয়া ও অস্ত্র মামলায় গ্রেপ্তারকৃত আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তার আলী কে মেয়র পদ থেকে অস্থায়ীভাবে বহিষ্কার করেছেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। সোমবার এক পরিপত্রের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেন বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া সুলতানা।
উল্লেখ্য গত ৯ জুলাই রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন (বিপিএমবার) মহোদয়ের নির্দেশনায় নিখুঁত গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রাজশাহী জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আলম, গোয়েন্দা শাখার একটা চৌকস দল এএসপি(ডিএসবি) রুবেল আহমেদ এবং ডিবি ইন্সপেক্টর আতিক ও বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে পাবনা জেলার ঈশ্বরদী থানার পাকশী এলাকায় রাতভর অভিযান চালিয়ে ভোর পাঁচটার দিকে আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তার আলীকে গ্রেফতার করেন তাঁরা ।
এ ঘটনার দুই দিন পূর্বে আড়ানী পৌর এলাকার বাসিন্দা ও পল্লী চিকিৎসক মনোয়ার হোসেন মজনু (৫০)কে তার বাড়িতে গিয়ে মারপিক করে মেয়র মুক্তার আলী ও তার কয়েকজন সাঙ্গ-পাঙ্গ। এ ঘটনায় তিনি থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে পুলিশ রাতে মুক্তার আলীর বাড়িতে আভিযান পরিচালনা করেন। এ অভিযানে তার নিজ শয়ন ঘরের আলমারির ড্রয়ার থেকে ৯৪ লক্ষ ৯৮ হাজার নগদ টাকা একটি বিদেশী পিস্তল, একটি সাটার গান, দুটি বন্দুক, ৪৩ রাউন্ড তাজা গুলি এবং সাতপুরি হেরোইন, ১০ গ্রাম গাঁজা ও ২০ পিচ ইয়াবা জব্ধ করা হয় ।
আর এসব অভিযোগের কারনে সোমবার(১২-জুলাই) এক পরিপত্রের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার পৌর সভা আইন ২০০৯ এর ৩২ ধারায় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহা: ফারুক হোসেন মেয়র মুক্তার আলীকে সাময়িক ভাবে বহিস্কার করেন।

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *