আশ্রয়ন প্রকল্পের সুবিধাভোগীদের মাধ্যমে ফুলে-ফুলে সিক্ত হলেন নির্বাহী কর্মকর্তা

বাঘা(রাজশাহী)প্রতিনিধি : আশ্রয়ন প্রকল্পের সুবিধা ভোগী রহিমা বেগম ও আবুল হোসেন বলেন, মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর দেয়া দালান ঘর পেয়ে আমরা অত্যান্ত আনান্দিত। কিন্তু এ ঘর দেখতে এসে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা যে আমাদের উপহার সামগ্রী দিয়ে যাবেন এটা কখনো ভাবিনি। তাই আমরা তাঁকে সামান্য ফুল দিয়ে সংবধিত করেছি। মঙ্গলবার(১৩-জুলাই) দুপুরে রাজশাহীর বাঘার বাউসা ইউনিয়নে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় নতুন ৮ টি ঘর পরিদর্শন ও বৃক্ষ রোপন কালে উপকার ভোগীরা এ কথা বলেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় নিজের বাড়ি পেয়ে যাওয়া ভূমিহীন-গৃহহীন মানুষ গুলো এখন নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছে । দেশজুড়ে বাস্তবায়িত এই কর্মসূচির আওতায় রাজশাহীর বাঘা উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে নিখুত ভাবে নির্মানকৃত প্রথমে ১৬ টি ভূমিহীন-গৃহহীন এরপর দ্বিতীয় পর্যায়ে আরো ৩৫ টি পরিবার ঘর পায়। এর মধ্যে বাউসা ইউনিয়নের দিঘায় ৮ টি পরিবারকে এ ঘর উপহার দেয়া হয়।
এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে ঘর পাওয়া পরিবার গুলো কেমন আছে সেটি দেখার জন্য বাউসা ইউনিয়নের দিঘা গ্রামে যান বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পাপিয়া সুলতানা। তিনি নতুন ঘর পাওয়া পরিবার গুলোর সাথে কথা বলেন এরপর প্রত্যেক হাতে ১০ কেজি করে চাল, ২ কেজি ডাল, ৩০ টা ডিম, ২ কেজি আলু এবং ২ লিটার সয়াবিন সহ প্রতি পরিবারের হাতে ২ টা করে আ¤্রপালি আম গাছ, বিভিন্ন প্রকার সবজি বীজ, বারমাস ধরবে এ রকম সজনে গাছের চারা এবং জৈব সার উপহার দেন।
এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিউল্লাহ সুলতান, উপজেলা প্রকৌশলী রতন কুমার ফোজদার, বাউসা ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান শফিক ও বাঘা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান সহ স্থানয়ী সুধীজন।
নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রয়ন সুবিধা ভোগীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আশ্রয়ন প্রকল্পের উদ্দেশ্য হল-ভূমিহীন, গৃহহীন, ছিন্ন অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসন, ঋণ প্রদান ও প্রশিক্ষনের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহে সক্ষম করে তোলা এবং আয়বর্ধক কার্যক্রম সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র্য দূরীকরণ। আপনারা পর্যায় ক্রমে সবকিছু পাবেন। তবে এখানে যে ৮ টি পরিবার রয়েছেন দয়া করে সবায় মিলে মিশে থাকবেন। তাহলে একদিকে যেমন জাতীর পিতার আতœা শানিন্ত পাবে অপর দিকে ধন্য হবেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *