অভিযোগ না নিয়ে বাদিকে হুমকি দিলো  থানার ওসি

রাজশাহী প্রতিনিধি:- রাজশাহীতে ভুক্তভোগী পরিবারের মামলা না নিয়ে উল্টো হুমকি দেন   রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মাজহারুল ইসলাম। এমন অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।
১৮ জুলাই সন্ধা ৭ টায় নগরীর শিরোইল দোসর মন্ডল মোড়ে অবস্থিত রাজশাহী মডেল প্রেসক্লাবে  সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ভুক্তভোগী পরিবারের নুরজাহান (৬০) এমন অভিযোগ করেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য জানানো হয়, গত ১৬ জুলাই শুক্রবার রাত ৯ টায় রাজপাড়া থানাধীন নিমতলা মোড়ে বার্গার ক্রয়কে কেন্দ্র করে কথা-কাটাকাটি হয়। বার্গার বিক্রেতা তাইজুলের ছেলে নাঈমের সাথে কথা কাটাকাটির পর নুরজাহান বেওয়ার ছেলে ইসমাইল হোসেন ছোটন ও তার দুই বন্ধু মানিক ও ডিকেন নিজ নিজ বাসায় চলে যায়। পরে তাইজুল তার ছেলে নাঈম সহ আরো ৮-১০ জন ছোটনের বাসায় হামলা চালায়। হামলায় গুরুতরভাবে আহত হয় ছোটন। পরে ছোট ভাই ছোটনকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে আহত হয় তার ভাই স্বপন, লিটন ও রতন।
ছোটনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য তার আত্মীয়রা রামেক হাসপাতালে ভর্তি করে।  চিকিৎসা নিয়ে ঐ দিন রাতেই মামলা করতে রাজপাড়া থানায় গেলে, অজ্ঞাত কারণে মামলা না নিয়ে ভুক্তভোগীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ,থানা থেকে বের করে দেন থানার অফিসার ইনচার্জ মাযহারুল ইসলাম।
সে সময় একজন সাংবাদিক থানায় উপস্থিত ছিলেন। ভুক্তভোগী সাথে ওসির আচরণের প্রতিবাদ করলে সেই সাংবাদিকের সাথেও অশোভন আচারণ ও থানা হাজতে ভরার হুমকি দেন এ সাংবাদিককে।
লিখিত বক্তব্য আরো জানান ,তারা থানা থেকে আসার পর অর্থের বিনিময়ে তাইজুলের পক্ষেই মামলা নিয়েছেন ওসি।
উল্লেখ্য যে, তাইজুল, নাইম, সাদ্দাম, টগর, ডিপলু, রকি দ্বয় এলাকার চিহৃত চাঁদাবাজ। ভুক্তভোগী পরিবারকে এলাকা ছাড়া করতে এই চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে তাদের বিরুদ্ধে নানা কূটকৌশল অবলম্বন করে আসছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়।
এ বিষয়ে রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মাজহারুল ইসলাম বলেন, তারা আসামী তাদের মামলা আমি কিভাবে নিবো। এছাড়াও তিনি ভুক্তভোগী ও সাংবাদিকদের সাথে অশোভন আচারণের বিষয়টি অস্বীকার করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *